এদেশে লাফিয় লাফিয়ে বাড়ছএ করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। পরিস্থিতি মোকাবিলায় ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত ভিসা বাতিল করেছে ভারত সরকার। নিজের মন্ত্রিসভার মন্ত্রীদের এই অবস্থায় বিদেশে যেতে বারণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু করোনা বাঁধ মানছে না কিছুতেই। এরমধ্যেই এদেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে এক বৃদ্ধের। পরিস্থিতি যা তাতে আশঙ্কিত সকলেই। তবে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার একাধিক দেশেও ক্রমে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস। এই পরিস্থিতিতে সার্কভুক্ত দেশগুলির নেতাদের একসঙ্গে কাজ করার আহ্বান জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

আরও পড়ুন: উহানে নাকি করোনা বয়ে এনেছে ট্রাম্পের সেনা, দাবি করছে জিংপিং-এর প্রশাসন

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী একটি ট্যুইট করেন। যেখানে সার্ক গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির রাষ্ট্রপ্রধানদের কাছে করোনা ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করার জন্য যৌথভাবে পরিকল্পনা তৈরির আবেদন রেখেছেন নরেন্দ্র মোদী। 

 

 

মোদী এদিন একাধিক ট্যুইট করেছেন। একটিতে তিনি লেখেন, "বিশ্ব এখন কোভিড-১৯ ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করছে। এর বিরুদ্ধে লড়াই করতে সরকার, বিভিন্ন সংগঠন ও সাধারণ মানুষ তাদের সামর্থ্য অনুযায়ী চেষ্টা করছেন। দক্ষিণ এশিয়া, যেখানে বিশ্বের প্রচুর মানুষের বসবাস সেখানে আমাদের নাগরিকদের সুস্থতার সঙ্গে কোনও আপস করা যাবে না।’

 

 

করোনা ভাইরাসের মোকাবিলার জন্য পরিকল্পনা করতে সার্ক গোষ্ঠীভুক্ত দেশগুলির রাষ্ট্রপ্রধানের কাছে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা করার প্রস্তাবও দিয়েছেন নরেন্দ্র মোদি। এভাবেই সার্কভুক্ত দেশগুলির নাগরিকদের সুরক্ষিত রাখা যাবে বলেই দাবি করেন তিনি। ট্যুইট করে মোদী বলেন, ‘এভাবে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে সবাইকে রক্ষা করে গোটা পৃথিবীর সামনে একটি উদাহরণ তৈরি করব আমরা। সুস্থ বিশ্ব তৈরির জন্য এটা উল্লেখযোগ্য একটা পদক্ষেপ হবে।’

আরও পড়ুন: মানেসরের কোয়ারেন্টাইনে মিলল করোনা আক্রান্তের সন্ধান , আতঙ্কে বন্ধ হল সেনার নিয়োগ

প্রধানমন্ত্রী ট্যুইট করার কিছুক্ষণের মধ্যে সার্কভুক্ত দেশগুলির নেতৃত্ব এই প্রস্তাবকে স্বাগত জানান। নেপালের প্রধানমন্ত্রী কেপি শর্মা ওলি  লেখেন, এই লড়াইতে অ্যান্যদেশগুলির সঙ্গে রয়েছে তাঁর সরকার।

 

দেশের নাগরিকদের সুরক্ষিত রাখতে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবে সাড়া দিয়েছেন শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষ।

 

 

স্বাগত জানিয়ে ট্যুইট করেছেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলি।

 

করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সার্কদেশগুলির একসঙ্গে কাজ করার প্রস্তাবকে স্বাগত জানিয়েছেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী লোটে তেসিরিং-ও। 

 

 

ভারত ছাড়াও বাংলাদেশ, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল, মালদ্বীপ, ভুটান ও আফগানিস্তান নিয়ে ১৯৮৫ সালে গঠিত হয়েছিল সার্ক। দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক,অর্থনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক উন্নয়নের লক্ষ্যেই গড়ে তোলা হয়েছিল দক্ষিণ এশিয় আঞ্চলিক সংযোগিতা সংস্থাকে। সূত্রের খবর, সার্কের অন্যতম সদস্য পাকিস্তানও  ভারত সহ সমস্ত প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে হাত মিলিয়ে করোনা রুখতে রাজি হয়েছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে।

এদেকি ইরাণে আটকে পড়া ৪৪ জন ভারতীয়কে  এদিন উদ্ধার করেন দেশে নিয়ে আসা হয়। মুম্বইয়ের ঘাটকোপারে  ভারতীয় নৌবাহিনীর কোয়ারেন্টাইন ফেসিলিটিতে পর্যবেক্ষণ রাখা হয়েছে তাদের।