প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আজ ৩৬তম 'প্রগতি' বা PRAGATI বৈঠকের সভাপতিত্ব করবেন।  আর ওই সভায় ৪৪ হাজার ৫৪৫ কোটি টাকা খরচ করে যেসব প্রকল্পগুলি তৈরি হচ্ছে সেইগুলি নিয়ে পর্যালোচনা করবেন। পশ্চিমবঙ্গ, তামিলনাড়ু, অসম সহ ১২ টি রাজ্যের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে ওই প্রকল্পগুলির। 

১২টি রাজ্যের মধ্যে রয়েছে, পশ্চিমবঙ্গ, অসম, তামিলনাড়ু, ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড, সিকিম, উত্তর প্রদেশ, উত্তর প্রদেশ, মিজোরাম, গুজরাট, মধ্য প্রদেশ, বিহার, মেঘালয়। যে আটটি প্রকল্প নিয়ে এদিন আলোচনা হবে সেগুলি মধ্যে তিনটি হল সড়ক পরিবহন মন্ত্রকের। দুটি রেল মন্ত্রকের ও বিদ্যুৎ মন্ত্রকের। একটি হল পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাস মন্ত্রকের। স্বারাষ্ট্র মন্ত্রকের অধীনে থাকা একটি প্রকল্প নিয়েও আলোচনা হবে। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের থেকে একটি বিবৃতি জারি করে একথা জানান হয়েছে। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিয়ে প্রগতি বৈঠকের কথা জানিয়েছেন। 

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে যে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে তাতে বলা হয়েছে মোট দশটি এজেন্ডা নিয়ে আলোচনা হবে। যারমধ্যে আটটি প্রকল্প রয়েছে। বাকি দুটি প্রকল্প ও কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা হবে।   এই বৈঠকেই প্রধানমন্ত্রী সিঙ্গেল ইউজ প্ল্যাস্টিক নির্মূল কর্মসূচি নিয়ে পর্যালোচনা করবেন। পাশাপাশি জোর দেওয়া হবে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনার ওপর। এই প্রকল্পের আওতায়  যেসব রাস্তাগুলি তৈরি হচ্ছে সেগুলি নির্মাণ কাজে জোর দিতেও বলতে পারেন তিনি। 


দিন কয়েক আগে নরেন্দ্র মোদী কয়েকটি প্রকল্প বাস্তবায়নে বিলম্ব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন। পূর্ববর্তী ৩৫টি প্রগতি প্রচারমূলক ক্রিয়াকলামে ২৯০টি প্রকল্পে মোট ব্যায় হয়েছিল প্রায় ১৩.৬০ লক্ষ কোটি টাকা। পাশাপাশি ৫১টি বিভিন্ন প্রকল্প ও পরিকল্পনা নিয়েও আলোচনা করা হয়েছিল।