গোটা বিশ্ব জুড়ে চলছে এখন করোনার প্রকোপ,  আর ভারতে এই মুহূর্তে দুটি বড় বিপত্তি এসেছে। যার মধ্যে একটি হল করোনা মহামারি, আর অপরটি হল সীমান্তে চিনের আগ্রাসন। তবে এই বিষয়ে ভারত যে চিনকে ছেড়ে কথা বলার পাত্র নয় তা স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছে দেশের সরকার। চিনের এই আগ্রাসনের মোকাবিলা করার মধ্যেই এবার দেশবাসীর জন্য এল সুখবর। ভারতে এশিয়ার বৃহত্তম সৌরবিদ্য়ুৎ প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

 

মধ্যপ্রদেশের রেওয়া জেলায় এই সৌরবিদ্যুত উৎপাদন কেন্দ্র তৈরি হয়েছে। ১৫৯০ একর জমির উপর এই প্ল্যান্ট তৈরি করা হয়েছে। ভিডিও কনাফারেন্সিংয়ের মাধ্যমেই প্রধানমন্ত্রী এদিন এই সোলার প্ল্যান্টের উদ্বোধন করেন। সূত্রের খবর, এই সোলার প্ল্যান্ট থেকে ২৪ শতাংশ বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে দিল্লি মেট্রো রেল কর্পোরেসনকে। বাকি ৭৬ শতাংশ বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে মধ্যপ্রদেশের বিভিন্ন সংস্থাকে।

 

উদ্বোধনের পর মোদী বলেন, ‘শুধু আজ নয়, একবিংশ শতাব্দীতে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ হতে চলেছে সৌরশক্তি। সৌরশক্তি সুনিশ্চিত, শুদ্ধ ও সুরক্ষিত। আজ ইতিহাস তৈরি করল রেওয়া। নর্মদা মা ও সাদা বাঘের জন্য পরিচিত ছিল রেওয়া। এবার তার সঙ্গে যুক্ত হল এশিয়ার সর্ববৃহৎ সৌরবিদ্যুৎ কেন্দ্র।’

আরও পড়ুন: বিকাশ দুবের এনকাউন্টার নিয়ে সরগরম রাজনীতি, এর মাঝেই ফের কঠোর লকডাউনের পথে যোগী রাজ্য

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, বিশ্বে সেরা ৫ সৌরশক্তি উৎপাদনের তালিকায় ভারত এখন অন্য়তম।এই সোলার প্ল্যান্ট ৭৫০ মেগাওয়াট আল্ট্রা মেগা সোলার ক্ষমতা সম্পন্ন। এর আগে ভারতের সবচেয়ে বড় সোলার পার্কটি ছিল কর্ণাটকে। এই প্রকল্পটি বাস্তবে রূপান্তরিত করতে খরচ হয়েছে ৪৫০০ কোটি টাকা। কেন্দ্রের তরফ থেকে আরও ১৮৩ কোটি টাকার আর্থিক সহায়তা দেওয়া হয়েছে এই সোলার পার্কটির উন্নয়নে খরচ করার জন্য। 

আরও পড়ুন: অক্সফোর্ডের করোনার ভ্যাকসিন আসতে আর কতদিন লাগবে, সময় জানিয়ে দিলেন গবেষকরা

রেওয়াতে সোলার পার্ক তৈরি করেছে রেওয়া আলট্রা মেগা সোলার লিমিটেড। ২৫০ মেগাওয়াটের ৩টি সোলার জেনারেটিং ইউনিট নিয়ে তৈরি করা হয়েছে রেওয়া প্রকল্প। এই প্ল্যান্ট-এর জন্য প্রতি বছর ১৫ হাজার টন কার্বন ডাই অক্সাইড বাতাসে কম মিশবে।