দিল্লিতে বিধানসভা ভোটের প্রচারে গিয়ে বুধবার এক জনসভায়  কর্মসংস্থান ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে লাঠিপেটার কথা বলেছিলেন রাহুল গান্ধী। কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতির সেই বক্তব্যকে হাতিয়ার করে বৃহস্পতিবার সংসদে সরব হলেন মোদী। লোকসভায় এদিন খোলাখুলি রাহুল গান্ধীকে আক্রমণ করেন প্রধানমন্ত্রী। নাম না করে টিউবলাইট বলে কটাক্ষ করেন রাহুলকে। 

বৃহস্পতিবার সংসদে রাষ্ট্রপতির দাবি ভাষণে রাহুলকে একহাত নিয়ে মোদী বলেন, 'আমি শুনলাম একজন কংগ্রেস সাংসদ বলেছেন যে দেশের যুবরা মোদীকে ৬ মাসে লাঠিপেটা করবে। তাহলে আমি আরও ঘনঘন সূর্য নমস্কার করব, যাতে আমার পিঠ এত শক্ত হয়ে যায় যে লাঠির আঘাতও আমার আর না লাগে।' এখানেই থামেননি মোদী, তিনি আরও বলেন,'শেষ ২০ বছরে আমি অনেক গালিগালাজ শুনেছি এবং নিজেকে গালি-প্রুফ বানিয়েছি। এখন নিজেকে আমি ডান্ডা-প্রুফ বানাচ্ছি।' 

আরও পড়ুন: ঘুমন্ত মাকে খুন করলেন টেকি, বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে ঘুরতে গেলেন আন্দামান

প্রধানমন্ত্রীর কথা শেষ হতে প্রতিবাদ করতে উঠে দাঁড়ান রাহুল। সংসদে হইহট্টগোলের জেরে রাহুলের কথা শোনা না গেলেও প্রধানমন্ত্রী তাঁকে দেখে ফের মন্তব্য করেন, বলেন, ' আমি এখানে ৩০-৪০ মিনিট ধরে কথা বলছি। আর এতক্ষণে সেখানে বিদ্যুৎ এল। কিছু টিউবলাইট হয়ই এরকম।'

আরও পড়ুন: তাজমহল ছেড়ে ক্যামেরায় গোমাতার ছবি, গুঁতো খেয়ে হাসপাতালে বিদেশি পর্যটক

সংসদে এদিন মোদীর ভাষণের সময় বারবার বাঁধা দিতে যাচ্ছিলেন কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরী সহ বিরোধীরা। অধীর যখন বারবার মোদীকে বাঁধা দিচ্ছিলেন, তখন অধীরকে সমর্থন করতে এসেছিলেন রাহুল। 

এরআগেও একাধিকবার কর্মসংস্থান ইস্যুতে মোদীকে নিশানা করেছেন রাহুল গান্ধী। কিন্তু বুধবারের জনসভায় রাগার সেই আক্রমণের ঝাঁঝ ছিল অনেকটাই বেশি। এদিকে বৃহস্পতিবার রাহুলের পাশাপাশি কংগ্রেসকেও তীব্র আক্রমণ করেছেন নমো। দেশে বিগত ৭০ বছর ধরে কোনও উন্নয়নই হয়নি বলে তোপ দেগেছেন প্রধানমন্ত্রী।