বিশ্বে অনেক ধরণের গর্ভাবস্থার ঘটনার বিষয়ে মামলা চলছে। কোথাও কোনও মহিলা বহু বছর পরে গর্ভবতী হন, তো কোথাও আবার একজন মহিলা একসঙ্গে পাঁচটি সন্তানের জন্ম দেন। তবে বিহার থেকে এমনই একটি ঘটনা প্রকাশ পেয়েছে, যা বিজ্ঞান কে ভুল বলে প্রমাণ করছে। বিহারে একজন মহিলা দাবি করেছেন যে স্বপ্নে স্বামীর দেখা পেয়ে তিনি গর্ভবতী হয়ে পড়েছেন। 

আরও পড়ুন- মহারাষ্ট্র ও হরিয়ানায় চলছে ভোটগণনা, বিপুলভাবে এগিয়ে বিজেপি

গর্ভাবস্থার এমন নজিরবিহীন ঘটনা ঘটেছে বিহারের ভাগলপুরে। এখানের এক মহিলা তার গর্ভাবস্থার কারণে শিরোনামে এসেছেন। মহিলার স্বামী কাজের সূত্রে ৭ মাস আগে কলকাতায় চলে আসেন। ফোনে দুজনের যোগাযোগ হত। কিন্তু স্বামী যখন দুর্গাপুজোয় সময় বাড়ি ফিরে গেলেন তখন জানতে পারেন তার স্ত্রী তিন মাসের গর্ভবতী। এই ঘটনা জানতে পেরে হতবাক ওই মহিলার স্বামী। স্ত্রী কে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে তিনি জানান, প্রতিদিন রাতেই স্বামীকে স্বপ্নে দেখতেন তিনি। স্বপ্নেই স্বামী তাঁকে ভালোবাসতেন, সেই কারণেই তিনি গর্ভবতী হয়ে পড়েছেন।

আরও পড়ুন- ফলের আগেই জয় ঘোষণা, ৫০০০ লাড্ডু এল পার্টি অফিসে

আরও পড়ুন- রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নামে আছে এক ডাইনোসর, অবহেলায় পড়ে রয়েছে কলকাতাতেই

এই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর, ওই মহিলার শ্বশুরবাড়ির লোক তাঁকে আর বাড়িতে রাখতে চাইছেন না। এদিক মহিলার ননদ পুলিশে অভিযোগ দায়ের করে ডিএনএ পরীক্ষা করার অনুরোধ করেছেন। এদিকে  গর্ভবতী ওই মহিলার ভাই শ্বশুরবাড়ির লোকদের যৌতুকের দাবীতে পাল্টা মামলা করার হুমকি দিয়েছেন।  এদিকে পঞ্চায়েত থেকেও এই বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসা হয়েছিল। এদিকে মহিলার ফোন ঘেটে পাওয়া গিয়েছে এক যুবকের নম্বর। মহিলার স্বামীর সন্দেহ, যে শিশুটি এই যুবকেরই। আপাতত এই বিষয়ে তদন্ত চলছে, এখনও স্বপ্নে গর্ভবতী হওয়ার ঘটনার সত্যতা সামনে আসেনি।