নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জায়গায় রাষ্ট্রপতি ভবনে প্রকাশ পেল কার ছবি? এই নিয়ে এখন অযাতিত বিতর্ক শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায়। কিছু নেটিজেনরা বিতর্ক তৈরি করে দাবি করেছেন, রাষ্ট্রপতি ভবনে ১২৫তন জন্মবার্ষিকিতে নেতাজি-র যে ছবি রামনাথ কোবিন্দ প্রকাশ করেছেন তা অভিনেতা প্রসেনজিত চট্টোপাধ্যায়ের। কিন্তু, দেখা যাচ্ছে যে নেতাজির ছবিটি আঁকা হয়েছে নেতাজি-কে নিয়ে তৈরি একটি বাংলা সিনেমার পোস্টার থেকে। নেটিজেনরা ছবিটি অভিনেতা প্রসেনজিতের বলে যে দাবি করছেন তা কোনওভাবেই ঠিক নয়। 

এই পোস্টার থেকেই ছবিটি আঁকা বলে দাবি করা হয়েছে

আরও পড়ুন - 'নেতাজী-বাংলাকে অপমান করেছো, রাজনীতিতে আমি এর প্রত্যুত্তর নেব', ভিক্টোরিয়ার ঘটনায় সরব মমতা

গত ২৩ জানুয়ারি নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকীর সূচনা উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি ভবনে নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর একটি প্রতিকৃতির উন্মোচন করেছিলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোভিন্দ। সেই ছবি টুইটারেও দেওয়া হয়েছিল রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে। সেই ছবিটিই নেতাজির নয়, বরং নেতাজির ভূমিকায় অভিনয় করা প্রসেঞ্জিত চট্টোপাধ্যায়ের বলে দাবি করেছেন নেটিজেনরা।

আরও পড়ুন - পথ চলা শুরু করল 'নেতাজী এক্সপ্রেস', পরাক্রম দিবসে হাওড়া স্টেশন থেকে রওনা ট্রেন

নেতাজির এই প্রতিকৃতি উন্মোচন করছেন রাষ্ট্রপতি, এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক

ছবিটি প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যাযের বলে দাবি নেটিজেনদের

আরও পড়ুন - 'নেতাজীকে নিয়ে একশবার রাজনীতি করব, হিম্মত থাকলে আটকে দিক', ফের বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ

২০১৯ সালে মুক্তি পেয়েছিল চিত্র পরিচালক শ্রীজিৎ মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ছবি 'গুমনামি'। নেতাজিই কি গুমনামি বাবা ছিলেন, এই প্রশ্নেরই উত্তর খোঁজার চেষ্টা করা হয়েছিল সেই ছবিতে। সেখানেই নেতাজি এবং গুমনামি বাবার ভূমিকায় ছিলেন প্রসেঞ্জিৎ চট্টোপাধ্যায়। নেটজেনদের দাবি রাষ্ট্রপতি ভবনের নেতাজির প্রতিকৃতিটি নেতাজির আসল ছবির থেকে নয়, আঁকা হয়েছে গুমনামী ছবির পোস্টার দেখে।

নেটিজদেনদের প্রতিক্রিয়া

রাষ্ট্রপতি ভবনের ছবিটি সত্যিই প্রসেঞ্জিৎ অভিনিত সেই সিনেমার নেতাজির ছবি থেকে আঁকা কিনা, সেই বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারেনি এশিয়ানেট নিউজ বাংলা। প্রতিকৃতিটির সঙ্গে প্রসেঞ্জিৎ অভিনিত নেতাজি চরিত্রটির মুখের বেশ কিছু মিল রয়েছে, এমনটাই বলছে চিত্রশিল্প জগৎ। তাদের মতে, সম্ভবত প্রতিকৃতি আঁকিয়ের নেতাজি সম্পর্কে গবেষণায় খামতির কারণেই এমনটা ঘটেছে। তবে ছবিটি নেতাজিরই এমনটাই বলেছে তারা।  

পাশাপাশি - প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় অভিনিত সুভাষচন্দ্র বসু চরিত্র, রাষ্চ্রপতি ভবনে উন্মোচিত নেতাজি প্রতিকৃতি এবং নেতাজির আসল ফটোগ্রাফ

প্রসেঞ্জিৎ চট্টোপাধ্যায় বা শ্রীজিৎ মুখোপাধ্য়ায়ের পক্ষ থেকেও কোনও বিবৃতি দেওয়া হনি। কিন্তু, এই বছর নেতাজির জন্মদিবস পালন নিয়ে যে পরিমাণ রাজনৈতিক প্রতিযোগিতা হয়েছে তাতে এই ঘটনা নিয়ে শীঘ্রই বড়সড় শোরগোল উঠতে চলেছে, এমনটাই আশঙ্কা করা হচ্ছে। তার আগে রসিক নেটিজেনরা বলছেন, শ্রীজিৎ মুখোপাধ্য়ায়ের ফিল্মটির কাস্টিং ডিরেক্টরের তুলনা নেই!