বাধা দেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছিল উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। উল্টে পুলিশের বিরুদ্ধেই হেনস্থার অভিযোগ তুলেছিলেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। এবার পাল্টা প্রিয়ঙ্কাকেই ট্রাফিক আইন ভঙ্গের অপরাধে ৬১০০ টাকা জরিমানা করল লখনউ পুলিশ। অভিযোগ, হেলমেট মাথায় না দিয়েই শুক্রবার লখনউতে  একটি স্কুটিতে সওয়ার হন প্রিয়ঙ্কা। 

শনিবার উত্তরপ্রদেশে প্রাক্তন আইপিএস অফিসার এসআর দাড়াপুরির বাড়িতে যাচ্ছিলেন প্রিয়ঙ্কা গাঁধী। নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখানোর অভিযোগে ওই অফিসারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তাই তাঁর পরিবারের সঙ্গে দেখা করার সিদ্ধান্ত নেন প্রিয়ঙ্কা। কিন্তু পথে তাঁকে বাধা দেয় মহিলা পুলিশ অফিসাররা। সেই বাধা উপেক্ষা করেই এগিয়ে যান কংগ্রেস নেত্রী। পুলিশ তাঁর পথ আটকাবে বুঝতে পেরেই গাড়ির বদলে এক দলীয় কর্মীর স্কুটিতে চেপে বসেন প্রিয়ঙ্কা। স্কুটিতে চড়েই পুলিশকে ধোকা দিয়ে ধৃত আইপিএস অফিসারের বাড়িতে পৌঁছে যান কংগ্রেস নেত্রী। 

আরও পড়ুন- ঘাড় ধরে টানা হয়নি, ইউপি মহিলা পুলিসের জবাবে অস্বস্তিতে প্রিয়াঙ্কা

প্রিয়ঙ্কার স্কুটিতে চড়ার সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। একা প্রিয়ঙ্কা নন, যে দলীয় কর্মীর স্কুটারে চেপে তিনি যাচ্ছিলেন, তিনিও হেলমেট পড়েননি। প্রিয়ঙ্কার মতোই ওই কংগ্রেস কর্মীকেও একই পরিমাণ জরিমানা করেছে লখনউ-এর ট্রাফিক পুলিশ। 

প্রিয়ঙ্কা পরে অভিযোগ করেন, উত্তরপ্রদেশ পুলিশের এক মহিলা অফিসার তাঁর গলা টিপে ধরেন। তাঁকে ধাক্কা মেরে মাটিতে ফেলে দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ করেন তিনি। যদিও যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তাঁদের পাল্টা দাবি, প্রিয়ঙ্কার তাঁর নির্দিষ্ট যাত্রাপথের ব্যবহার না করে অন্য পথ ধরাতেই সমস্যা হয়েছে।