চোরাশিকারিদের জেরে জঙ্গলে পশু প্রাণীর অবাধ বিচরণ আজ যথেষ্ট প্রশ্নের মুখে। নিরাপত্তা ভেঙে অবাধে পশু-পাখী শিকার করে তাদের চামড়া বাজারে বিক্রি করে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করছেন কিছু অসৎ চোরাশিকারিরা। এমনই কয়েকজনের কাছ থেকে উদ্ধার করা হল বাঘের চামড়া। যার দাম প্রায় ৫ লক্ষ টাকা। 

পুনে শহরের পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ ইউনিট ১ একটি বাঘের ছাল উদ্ধার করে। পুলিশ সাব-ইন্সপেক্টর যশ বোরাটে এবং লাহু সাতপুতির নেতৃত্বে পুলিশ নায়েক শচিন যাদব-এর একটি দল রীতিমতো ফাঁদ পাতেন অপরাধীদের ধরার জন্য়। তাঁদের কাছে থাকা খবর অনুযায়ী ওই পুলিশবাহিনী সমরথ থানা এলাকার কাছ কড়া পাহাড়ায় নিযুক্ত ছিলেন। তাদের জালের ধরা পড়ে দুজন। তাদের তল্লাশি চালিয়ে পাঁচ লক্ষ টাকা মুল্যের একটি বিশালাকার বাঘের ছাল উদ্ধার করল পুলিশ। 

 

এই চক্রের সঙ্গে যুক্ত যে দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে তাদের পরিচয়ও প্রকাশ করা হয়েছে। তাদের একজনের নাম রামেশ্বর হরিশ্চন্দ্র দেশমুখ, বয়স তার আনুমানিক পঁয়ত্রিশ বছর এবং বিজয় গণপত জগতাপ নামে বছর আটত্রিশের আরও এক ব্যক্তি। পুলিশ জানিয়েছে তারা দুজনেই ঔরঙ্গবাদের বাসিন্দা। 

আরও পড়ুন- গত ৫ বছরে বিশ্বে ভারতের কদর অনেকটাই বেড়েছে, মার্কিন সফর থেকে দেশে ফিরে বার্তা মোদীর

ক্রাইম শাখার ডিসিপি বচ্চন সিং এবং সিনিয়র পুলিশ ইন্সপেক্টর অরুণ ওয়াইকার এই গোটা অপারেশটির তত্বাবধায়ক ছিলেন এবং তাঁরাই মুলত দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছিলেন। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সমরথ থানায় এফআইআরও দায়ের করা হয়েছে।