আজ শুরু হল সপ্তোদশ লোকসভার প্রথম অধিবেশন। আর এই প্রথম অধিবেশনেই উপস্থিত ছিলেন না কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। সকাল থেকেই 'কোথায় রাহুল' গুঞ্জন শুরু হয়েছিল, আর সেই গুঞ্জনের অবসান ঘটল তাঁর টুইটে। 

প্রসঙ্গত এদিন সকালে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন যে বিরোধীরা কে কত ভোট পেয়েছেন তা ভুলে গিয়ে সরকারের পক্ষ বা বিপক্ষে না গিয়ে নিরপেক্ষভাবে গণতন্ত্রের কাজে ব্রতী হতে হবে। সেইসঙ্গে এবার সংসদে রয়েছে এক ঝাঁক নতুন মুখ। তাঁদের উদ্দেশেও প্রধানমন্ত্রী বলেন যে, এবারের বাদল অধিবেশন শুরুর সঙ্গে সঙ্গে অনেক নতুন সদস্যদের সঙ্গে আলাপ হওয়ার সুযোগ রয়েছে। নতুন সদস্যদের আগমণের সঙ্গে সঙ্গে নতুন আশা, নতুন উদ্যোম-উদ্দীপনা এবং নতুন স্বপ্নও জুড়ে যায়। সর্বপরি পক্ষ বিপক্ষ সব দলকেই একজোট হয়ে দেশের জন্য কাজ করার কথা বলেছেন মোদী। 

এদিন সংসদে প্রথমেই শপথ গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু রাহুলের উপস্থিতি সকলের চোখ এড়িয়ে গেলেও তা প্রথম লক্ষ্য করেন রিপাবলিকান পার্টি অফ ইন্ডিয়ার সাংসদ রামদাস আটওয়ালে। দলের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে, তিনি আর কিছুক্ষণের মধ্যেই যোগ দেবেন অধিবেশনে। কিন্তু দীর্ঘ সময় অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ার পরও রাহুলের না আসাকে ঘিরে শুরু হয়েছিল জোড় গুঞ্জন। 

এরপরই দুপুর ৩টে নাগাদ রাহুল গান্ধীর টুইটে অবসান হয় সমস্ত জল্পনার। ওয়ানাড় লোকসভা কেন্দ্র থেকে নির্বাচিত কংগ্রেস প্রার্থী রাহুল গান্ধী টুইট করে জানান যে, আজ বিকেলে শপথ নেবেন তিনি। প্রসঙ্গত আজ এক দফা শপথ গ্রহণ করলেন বেশকিছু মন্ত্রী। সংসদের ৫৪২ জন সদস্যের শপথগ্রহণ চলবে আরও দু-দিন ধরে।