নাগরিকত্ব বিল নিয়ে এবার উত্তাল হল দিল্লি। রবিবার দক্ষিণ দিল্লিতে এই আইনের প্রতিবাদে আন্দোলনের ডাক দেয় জামিয়া মিল্লিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা। এদিন নিউ ফ্রেন্ডস কলোনিতে আন্দোলন শুরু করেছিল তাঁরা। প্রথমে ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা ছিল ১০০ থেকে ২০০। প্রথমিকভাবে এই মিছিল ছিল শান্তিপূর্ণ। এই আইন প্রত্যাহারের জন্যই এদিন পড়ুয়ারা পথে নেমেছিল ছাত্রছাত্রীরা। পুলিশের হস্তক্ষেপেই পরিস্থিতি জটিল হয়ে ওঠে দাবি পড়ুয়াদের। 

আরও পড়ুনঃ প্রয়োজনে নাগরিকত্ব বিলে পরিবর্তন, হিংসা রুখতে নয়া পন্থা অমিতের

প্রাথমিকভাবে এই বিক্ষোভকে আটকাতে ঘটনাস্থলে হাজির হয় পুলিশ। ছাত্রদের পিছু হটানোর জন্য ফাটানো হয় টিয়ার গ্যাসের সেল। পুলিশের উপস্থিতি এই প্রথমে বিক্ষোভ খানিকটা দমলেও বিক্ষোভকারীরা পরবর্তিতে আবারও পথে নামে। জ্বালিয়ে দেওয়া হয় বেশ কয়েকটি গাড়ি। ঘটনার জেরে বন্ধ দিল্লি-মথুরা হাইওয়ে। শহরের বাকি অংশের গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক চেষ্টায় পুলিশ-প্রশাসন। 

আরও পড়ুনঃ অশান্তি না কমলে এবার পাল্টা প্রতিরোধ, হুঁশিয়ারি দিলেন দিলীপ ঘোষ

এদিন প্রতিবাদের জন্য এক বিপুল সংখ্যক ছাত্রছাত্রী রাস্তায় জমায়েত হওয়ার ফলে পুলিশ বাহিনী মোতায়ন করা হয়েছিল। কিন্তু রাস্তা আটকে এই বিক্ষোভ করার ফলেই হস্তক্ষেপ করতে বাধ্য হয় পুলিশ। অন্যদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মিরান হায়দার এই ঘটনা নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন। তাঁর মতে তিনি চিন্তিত ছাত্রছাত্রীদের নিরাপত্তা নিয়ে। সকলকে দ্রুতে ক্যাম্পাসে ফিরে যাওার নির্দেশও দেন এদিন তিনি।