আজ 'ঘুল' তো কাল 'সেক্রেড গেমস'। নেটফ্লিক্স-আমাজনে মজে আছে তামাম ভারতবর্ষ। এবার তাতেই চলতে পারে কাঁচি। সুপ্রিম কোর্ট থেকে সম্প্রতি কেন্দ্রকে এই মর্মেই নোটিশ দেওয়া হল। 

ভারতে নেটফ্লিক্স, আমাজন হটস্টারের মত সংস্থাগুলি যে ছবি দেখায়, তা যৌনতা খোলামেলা দেখানো হয়, কোনও সার্টিফিকেশন বা সেন্সরশিপের তোয়াক্কা করা হয় না, এই অভিযোগ নিয়ে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা 'জাস্টিস ফর রাইট' দিল্লি হাইকোর্টে গিয়েছিল এই বছর ৮ ফেব্রুয়ারি। তখন সেই আবেদন খারিজ করে দেয় দিল্লি হাই কোর্ট। তখন তাঁরা সুপ্রিম কোর্টে যায়।

সংবাদসংস্থা এএনআই-এর টুইটারে জানানে হয়েছে, " নেটফ্লিক্স আমাজনের মতো প্ল্যাটফর্মগুলির কার্যকলাপে সরকারি বিধিনিষেধ আরোপের একটি দাবি করা হয়েছিল। সেই দাবিতেই সাড়া দিয়ে কেন্দ্রকে একটি চিঠি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। " 

আবেদনকারী সংস্থার দাবি, কোনও বিধিনিষেধ না থাকার দরুন এই সংস্থাগুলি এমন জিনিস প্রচার করছে যা স্পর্শকাতর। তাতে নৈতিকতা লঙ্ঘন হচ্ছে বারবার। প্রচার করা হচ্ছে নগ্নতা ও অশ্লীলতা। সংস্থার বক্তব্য এতে ইনফরমেশান টেকনোলজি অ্যাক্ট ও ভারতীয় দন্ড সংহিতার একাধিক অন্যান্য আইনও ভঙ্গ হচ্ছে, এ বিষয়ে সরকারি নজরদারি প্রয়োজন।

প্রসঙ্গত, এই বছর জানুয়ারি মাসে  নেটফ্লিক্স, আমাজন, ভুটের মত সংস্থাগুলি  কিছু স্ব-আরোপিত বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ তৈরি করেছিল  নিজেদের ভিডিও কন্টেন্টের ক্ষেত্রে কিছু সাধারণ নিয়ম আরোপের  জন্যে। কিন্তু ভারতের সেন্সরশিপ বিধির আওতায় এই ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মগুলি নেই, তাই আইন করে তাকে আটকানোও সম্ভব হয়নি। আপাতত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশিকার কী উত্তর দেয় কেন্দ্র, কী পদক্ষেপ গ্রহণ করে সরকার, তার দিকেই চেয়ে রয়েছে নেটফ্লিক্স-আমাজনের ভক্তরা।