শুরু থেকেই আইএনএক্স মিডিয়া মামলার জেরে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীকে গ্রেফতার করা নিয়ে ২১ অগাস্ট চলেছিল একপ্রস্থ নাটক। আর এবার আইএনএক্স মিডিয়া মামলায়ে সোমবার শীর্ষ আদালতের কাছ থেকে জোর ধাক্কা পেলেন চিদম্বরম। সোমবার শীর্ষ আদালতে তাঁর জামিনের আবেদনের শুনানির কথা ছিল। 

প্রসঙ্গত, আইএনএক্স মিডিয়া মামলায় প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর জামিনের আর্জি চেয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন প্রাক্তন এই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। কিন্তু তাঁর সেই আবেদন খারিজ করে দেয় দিল্লি হাইকোর্ট। এরপর হাইকোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন পি চিদম্বরমের আইনজীবীরা।  বিচারপতি আর ভানুমতির বেঞ্চ এদিন সাফ জানিয়ে , আগাম জামিন পাওয়া না গেলেও সরাসরি জামিনের আবেদন করতেই পারেন তিনি। তবে তার শুনানি হবে সংশ্লিষ্ট আদালতেই হবে, তবে তা দিল্লি হাইকোর্ট-এ হবে না সিবিআই আদালতে তা স্পষ্ট করে জানায়নি সুপ্রিমকোর্ট।

আরও পড়ুন- জি-৭ সম্মেলনে নরেন্দ্র মোদী, উঠে আসতে পারে কাশ্মীর প্রসঙ্গ

কিন্তু সোমবার সকালে শীর্ষ আদালতের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় যে, চিদম্বরমের জামিনের মামলা নাকি তালিকাভুক্তই করা হয়নি। সুতরাং সেই মামলার শুনানি আজ হওয়া সম্ভব নয় বলেও জানিয়ে দেয় শীর্ষ আদালত। একটি বেঞ্চ-এর তরফে পি চিদম্বরমের আইনজীবি কপিল সিব্বল-কে জানানো হয়েছে, প্রধান বিচারপতি রঞ্জন  গগৈ-এর আদেশ পাওয়ার পরই তাঁর পিটিশানটি তালিকাভুক্ত করা হবে। 

 

উপত্যকায় নিরাপত্তা বাহিনীর গাড়ি ভেবে পাথর ছুঁড়ল বিক্ষোভকারী, ঘটনায় নিহত ট্রাক চালক

এক চূড়ান্ত নাটকীয়তার পর বুধবার রাতে আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতি মামলায় পি চিদম্বরম-তে গ্রেফতার করে সিবিআই। সিবিআই-এর অভিযোগ, আইএনএক্স মিডিয়া দুর্নীতিতে সরাসরি যুক্ত রয়েছেন চিদম্বরম৷ পাশাপাশি ওই একই মামলায় তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত করছে ইডিও। শুক্রবার গ্রেফতারি এড়াতে জামিনের আবেদন করলেও তাঁকে জামিন দেয়নি সুপ্রিম কোর্ট। ফলে গত চার দিন ধরে সিবিআই হেফাজতেই রয়েছেন বর্ষীয়ান এই কংগ্রেস নেতা।