পশ্চিমবঙ্গে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের শাসনকালে যেভাবে রাজনৈতিক হত্যা হয়ে চলেছে, তা দেখে কার্যত বিস্মিত সুষমা স্বরাজ। বৃহস্পতিবার একটি আক্রমণের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এমনটাই জানালেন প্রাক্তন পররাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বর্ষীয়ান বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজ।

সুষমা স্বরাজ আরও বলেন, যে মহিলা একদিন নিজেই রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়েছিলেন, তিনি কীভাবে এইধরণের রাজনৈতিক প্রতিহিংসাকে সায় দিতে পারেন। তিনি আরও বলেন, মমতা বন্দোপাধ্যায় যে কেন এইধরণের ঘটনাকে সায় দিচ্ছেন তা সত্যিই তিনি জানেন না। পাশাপাশি তিনি আরও মন্তব্য করেন, তিনি হতবাক এটা দেখে যে, একজন মানুষ কেবল তাঁর ক্ষমতা বাঁচাতে এই পথ অবলম্বন করছেন। বৃহস্পতিবার কনস্টিটিউশন ক্লাবে 'পিপল'স ট্রাইব্যুনাল ওন পলিটিক্যাল ভায়োলেন্স ইন বেঙ্গল' নামক একটি ইভেন্টে এসে এমনটাই মন্তব্য করেন তিনি। 

এই প্রসঙ্গে সুষমা স্বরাজ একটি ঘটনার কথা উল্লেখ করেন যেখানে তিনি হাসপাতালে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করতে হয়েছিলেন, সেই সময়ে মমতা বন্দোপাধ্যায় মাথায় আঘাত নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তারপরই তিনি এরাজ্যে এক বিজেপি কর্মীর হত্যার প্রসঙ্গটি তোলেন। তিনি বলেন,  মাত্র ১৮ বছর বয়সী একজন বিজেপি সমর্থককে গাছের সঙ্গে ঝুলিয়ে হত্যা করার ঘটনা ব্যাখা  করে বলেন যে, তাঁর জামায় লিখে দেওয়া হয়েছিল যে, বিজেপিতে যোগ দেওয়ার শাস্তি। 

এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন যে, বিষয়টি খুবই হতাশজনক যে, এই ধরণে ঘটনায় পুলিশ এফআইআর করার বদলে সাধারণ ডায়েরি করেই ছেড়ে দেন। তিনি আরও বলেন যে,রাজনৈতিক প্রতিহিংসার ঘটনায় অপরাধীর শাস্তি পাওয়া উচিত। নিহতদের পরিবারের সেই বিচার পাওয়ার অধিকার রয়েছে।