Asianet News BanglaAsianet News Bangla

Suspended MPs: মঙ্গলবার উপরাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত, ক্ষমা চাইবেন বহিষ্কৃত সাংসদরা

১২ জন বহিষ্কৃত সাংসদ মঙ্গলবার সাক্ষাত করবেন উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডুর সঙ্গে। সেখানেই তাঁদের ক্ষমা চেয়ে নেওয়ার কথা বলে সূত্রের খবর।

Suspended Rajya Sabha MPs likely to apologise Tuesday, say sources bpsb
Author
Kolkata, First Published Nov 30, 2021, 12:15 AM IST
  • Facebook
  • Twitter
  • Whatsapp

উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডুর(VP Venkaiah Naidu) কাছে ক্ষমা চাইতে পারেন রাজ্যসভার বহিষ্কৃত(Suspended) সাংসদরা (Rajya Sabha MPs)। ১২ জন বহিষ্কৃত সাংসদ মঙ্গলবার সাক্ষাত করবেন উপরাষ্ট্রপতি ভেঙ্কাইয়া নাইডুর সঙ্গে। সেখানেই তাঁদের ক্ষমা চেয়ে নেওয়ার কথা বলে সূত্রের খবর। সোমবার সংসদের শীতকালীন অধিবেশন শুরু হয়। সেখানেই অসংসদীয় আচরণের (Violent Behaviour) জন্য রাজ্যসভা থেকে সাসপেন্ড (Suspend) করা হল ১২ জন সাংসদকে (MPs)। কংগ্রেস (Congress) ও সিপিএমের (Cpm) পাশাপাশি সেই তালিকায় দুই তৃণমূল (TMC MP) সাংসদেরও নাম রয়েছে। 

সংসদের বাদল অধিবেশন চলাকালীন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করার অভিযোগ রয়েছে তাঁদের বিরুদ্ধে আর সেই কারণেই গোটা শীতকালীন অধিবেশনের (Winter Session) জন্যই এই ১২ জন সাংসদকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছে বিরোধী দলগুলি। 

বাদল অধিবেশন চলাকালীন বিরোধীদের লাগাতার বিক্ষোভের জেরে সংসদে অভিযোগ জানিয়েছিল কেন্দ্র। ১২ জন সাংসদের বিরুদ্ধে সংসদের ভিতরে ও বাইরে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির অভিযোগ তোলা হয়েছিল। পাশাপাশি সংসদের বাইরে নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে ধাক্কাধাক্কি করারও অভিযোগ আনা হয়। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গোটা বিষয়টি খতিয়ে দেখা হয়। তারপরই তারপরই অভিযুক্ত সাংসদদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করে সংসদ। 

বাদল অধিবেশনের সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গোটা শীতকালীন অধিবেশনের জন্যই এই ১২ জনকে সাংসদকে সাসপেন্ড করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিশেষ সূত্রের খবর, সংসদের বাকি শীতকালীন অধিবেশনের জন্য বহিষ্কৃত সাংসদরা তাদের কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চাইবেন। সরকারি সূত্র জানিয়েছে, নিয়ম অনুযায়ী ক্ষমা চাওয়া দরকার।

এদিকে, সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী সোমবার রাজ্যসভার চেয়ারম্যান এম ভেঙ্কাইয়া নাইডুকে চিঠি লিখেছেন যে ১২ জন সাসপেন্ড হওয়া সাংসদ রাজ্যসভায় নিয়ম বহির্ভূত ভাবে অসম্মানজনক পরিবেশ তৈরি করেছেন। এই চিঠিতে তিনি চেয়ারম্যানের কাছে অনুরোধ করেন যাতে এদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়। 

এই তালিকায় রয়েছেন সিপিএম সাংসদ এলামারাম করিম, কংগ্রেস সাংসদ ফুলো দেবী নেতম, ছায়া বর্মা, রিপুন বোরা, রাজামণি প্যাটেল, সৈয়দ হুসেন, অখিলেশ প্রসাদ সিং। সিপিআই-এর বিনয় বিশ্বম এবং শিবসেনার সাংসদ প্রিয়াঙ্কা চতুর্বেদী ও অনিল দেসাই। এছাড়া দুই তৃণমূল সাংসদের মধ্যে নাম রয়েছে দোলা সেন ও শান্তা ছেত্রীর। অবশ্য এই তালিকায় অর্পিতা ঘোষের নামও ছিল। কিন্তু, তিনি রাজ্যসভার সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার পর এই শাস্তি আর তাঁর বিরুদ্ধে কার্যকর হচ্ছে না।

Follow Us:
Download App:
  • android
  • ios