ধরা পড়েছেন অভিনেতা কাম অ্যাক্টিভিস্ট দীপ সিঁধু। আজ সকালে এমনই ঘোষণা করেছে দিল্লি পুলিশ। প্রজাতন্ত্র দিবসে ট্রাক্টর মিছিলে হওয়া হিংসার পর থেকেই দীপ সিঁধুর খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছিল পুলিশ। যদিও, সমানে ফেসবুকে ভিডিও পোস্ট করে নিজেকে নির্দোষ বলে দাবি করে আসছিলেন দীপ। দিল্লি পুলিশ সূত্রে দাবি করা হয়েছে, দীপের ওই ভিডিও দেশের বাইরে থেকে তাঁর এক বন্ধু ফেসবুকে আপলোড করছিলেন। আর দীর গা-ঢাকা দিয়েছিলেন। 

আরও পড়ুন- হিমবাহ ফেটে নয়, পাহড় থেকে প্রচুর বরফ নেমে যাওয়াতেই বিপর্যয় চামোলিতে 

প্রজাতন্ত্র দিবসে কৃষকদের ট্রাক্টর মিছিল-কে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে দিল্লি। প্রজাতন্ত্র দিবসের দিন এই কৃষকদের এই কর্মসূচি-তে আশান্ত হয়ে ওঠে দিল্লি এবং তার আশপাশের এলাকা। পুলিশি প্রতিরোধ হঠিয়ে লালকেল্লায় ঢুকে পড়ে কৃষকদের ট্রাক্টর মিছিল। অনেক কৃষক লালকেল্লার বেদি ওঠে পড়ে খালসাদের ধর্মীয় পতাকা উড়িয়ে দেয়। এমনকী, লালকেল্লার গম্বুজে ওঠে পড়েও ওড়ানো হয় খালসাদের ধর্মীয় পতাকা।

আরও পড়ুন- ১২১ বছরের উষ্ণতম জানুয়ারি, ২০২১ সালের প্রথম মাসেই আবহওয়ায় রেকর্ড

পুলিশ মৃদু লাঠিচার্জ করে এবং ব্যারিকেড তৈরি করে ট্রাক্টর মিছিলকে আটকানোর চেষ্টা করেছিল। কিন্তু, পুলিশের রক্ষাণাত্মক ভূমিকায় আরও বেশি হিংসাত্মক হয়ে পড়েছিলেন কৃষকরা। কোথাও ট্রাক্টর চালিয়ে পুলিশ বাহিনীকে চাপা দেওয়ার চেষ্টার অভিযোগ সামনে আসে। কোথাও ধারাল অস্ত্র নিয়ে পুলিশের উপরে আক্রমণের অভিযোগ নথিভুক্ত হয়। ট্রাক্টর মিছিলে অসংখ্য পুলিশকর্মী জখম হয়েছিলেন। এই হিংসার ঘটনায় প্রজাতন্ত্র দিবসের দিনে দিল্লি পুরো রণক্ষেত্র হয়ে উঠেছিল। ট্রাক্টর মিছিলের এই হিংসাতেই পুলিশ যাদের নামে এফআইআর দায়ের করে তাদের মধ্যে নাম ছিল দীপ সিঁধুর।