মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরের দ্বিতীয় দিনে মঙ্গলবার নয়াদিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তাঁর সঙ্গে একটি রূদ্ধদ্বার বৈঠক করলেন। তারপর দুই দেশের প্রতিনিধি স্তরের বৈঠকও হল। সেখান থেকে বেরিয়ে যৌথ সাংবাদিক সম্মেলন করলেন দুই রাষ্ট্রনেতা। একদিন আগেই নমস্তে ট্রাম্পের মঞ্চে মোদীকে কুব ভালো 'নেগোশিয়েটর' বলেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। দেখে নেওয়া যাক এদিনের বৈঠকে ভারতের জন্য কী কী আদায় করলেন নরেন্দ্র মোদী -

৩ বিলিয়ন ডলারের প্রতিরক্ষা চুক্তি

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ২.৬ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে ২৪টি এমএইচ ৬০ রোমিও হেলিকপ্টার, ৮০ মিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে ৬টি এএইচ ৬৪ ই অ্যাপাচি হেলিকপ্টার-সহ আরও নানা প্রতিরক্ষা সাজসরঞ্জাম কেনার চুক্তি পাকা করল ভারত। ট্রাম্প বলেছেন, এতে করে ভারত-মার্কিন যৌথ প্রতিরক্ষা ক্ষমতার উন্নতি হবে ।

আরও পড়ুন - মোদীর সঙ্গে ব্যস্ত ট্রাম্প, দিল্লির স্কুলে কচিকাঁচাদের সঙ্গে 'হ্যাপিনেস ক্লাস' মেলানিয়ার

পাক মদতপুষ্ট সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের সংকল্প

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এদিন ট্রাম্প-কে সাক্ষী রেখে পাকিস্তানের নাম না করে বলেন, ভারত ও আমেরিকা সন্ত্রাসবাদের সমর্থনদের বিরুদ্ধে যৌথ লড়াইয়ের সংকল্প করেছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প-ও পরে বলেন, 'চরমপন্থী ইসলামি সন্ত্রাসবাদ'-এর মোকাবিলায়, এবং পাকিস্তানের মাটিতে সন্ত্রাসবাদি কার্যকলাপ নির্মূল করতে সংকল্প নেওয়া হয়েছে।

তিনটি মউ স্বাক্ষর

এছাড়া এদিন ভারত ও আমেরিকা তিনটি বিষয়ে মউ চুক্তি সাক্ষর করেছে। তারমধ্যে অন্যতম জ্বালানি বিষয়ে চুক্তি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের দাবি, দুইদেশের জন্যই চুক্তিগুলি খুব ভালো।

আরও পড়ুন - ফাস্টফুড লাভার ট্রাম্পের জন্য ১০৭ কেজির ইডলি, তাক লাগালেন চেন্নাইয়ের শেফ

ভারত-মার্কিন সম্পর্ক

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এদিন আরও জানান ভারত-মার্কিন সম্পর্কের বিভিন্ন দিক নিয়ে এদিন আলোচনা হয়েছে। তাতে সম্পর্কের উষ্ণতা আরও বেড়েছে। প্রতিরক্ষা খাতে ভারত-মার্কিন সম্পর্ক জোরদার করা এই অংশীদারিত্বের একটি গুরুত্বপূর্ণ দিক। ট্রাম্প-ও জানান ভারত মার্কিন সম্পর্ক এর আগে কখনও এত সুদৃঢ় ছিল না। মার্কিন য়ুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সুসম্পর্ক মানে ভবিষ্যতে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে কূটনৈতিক সুবিধা বলে মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

আরও পড়ুন - নমস্তে ট্রাম্প অনুষ্ঠানে সেজে উঠল আমুল গার্লও, 'মাস্কা' দিল মার্কিন প্রেসিডেন্ট-কে

এবং বানিজ্য চুক্তি

এই বারের বৈঠকে ইন্দো-মার্কিন বানিজ্য চুক্তি হল না। তবে খুব শিগগিরই এই চুক্তি হতে চলেছে বলে আভাস দিয়েছেন দুই রাষ্ট্রনেতাই। দুই দেশের বানিজ্যমন্ত্রকের প্রতিনিধিরা আলোচনার মাধ্যমে একটি জায়গায় পৌঁছনো যাবে লবলে মনে করছেন দুই নেতাই। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানিয়েছেন অনেক বড় মাপের একটি চুক্তির পরিকল্পনা চলছে।