হাতে তরোয়াল নিয়ে ঘোড়ায় চেপে বিয়ে করতে যাওয়ার রীতি রয়েছে রাজপুততের মধ্যে। কিন্তু এ আবার কী। হাতে বন্দুক, চোখে সানগ্লাস পরে, ঘোড়ায় চড়ে কনে চললেন বরের বাড়ি বিয়ে করতে। এমন অদ্ভূত এই ঘটনা দেখা গেল মধ্যপ্রদেশের খান্দোয়াতে। গত ২২ জানুয়ারি একই সঙ্গে বিয়ে ছিল দুই বোন সাক্ষী ও সৃষ্টির। দুই নববধূই সেজে গুজে ঘোড়ায় চেপে বিয়ে করতে গেলেন বরের বাড়ি।

আরও পড়ুন: রীতি বদল প্রজাতন্ত্র দিবসের অনুষ্ঠানে, প্যারেডের আগে ন্যাশনাল ওয়ার মেমোরিয়ালে যাবেন মোদী

আরও পড়ুন: দিল্লি ভোটের প্রচারে মোদীর 'চায়ে পে চর্চা' এবার কেজরির অস্ত্র, নাম দিলেন 'কাম কি চায়'

দুই বোনের মাথাতেই ছিল পাগড়ি। চোখেন সানগ্লাস আর হাতে নিয়েছিলেন তরোয়াল। একজন পরেছিলেন নীল শাড়ি। অন্যজন গোলাপি। দুইজনেই কন্যাযাত্রী নিয়ে চললেন যার যার বহু বরের বাড়িতে বিয়ে করতে। ইতিমধ্যে তাঁদের এই ছবি ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

 

মহিলা ও পুরুষ দুইজনেই সমান। চিরাচরিত সেই বার্তা দিতেই এইভাবে বিয়ের সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন দুই কনে। এমনকি আধার কার্ডের আদলে নিজেদের বিয়ের কার্ড তৈরি করেছেন  তাঁরা। 

 

 

তবে বহু বছর ধরেই বারাত নিয়ে কনের বহু বরের বাড়িতে বিয়ে করতে যাওয়ার রীতি  পতিদার  সম্প্রদায়ের মধ্যে রয়েছে। এমনটাই জানিয়েছেন দুই কনের বাবা। কেন্দ্রীয় সরকার 'বেটি বাঁচাও' কর্মসূচি নিয়েছে। সমাজে মেয়েদের এগিয়ে যাওয়ার জন্য নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে। মেয়েরা যে ছেলেদের সমান সেটা বোঝাতেই  এই রীতি তাঁদের সম্প্রদায়ে দীর্ঘদিন ধরে চলে আসছে বলে দাবি করেন তিনি।