সোমবার সপরিবারে এদেশে এসেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। দীর্ঘ জেট ল্যাগের পরও আহমেদাবাদের মাটিতে পা দিয়ে গিয়েছেন গান্ধীজির স্মৃতি বিজড়িত সবরমতী আশ্রমে। সেখান থেকে মোতেরা স্টেডিয়াম। তারপর আগ্রায় তাজমহল দর্শনে। ভারতে আসার ব্যাপারে আগে থেকেই নিজের উচ্ছাস চেপে রাখেননি ট্রাম্প। মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই উচ্ছাসের প্রকাশ্যে স্বয়ং প্রশংসা করেছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সোমবার ট্রাম্পকে অর্ভ্যত্থনা জানাতে বিপুল জনসমাগমের আয়োজন করেছিলেন তিনি। সোমবার রাতে ট্রাম্প সস্ত্রীক দিল্লি এসে পৌঁছলেও ভারত সরকারের পক্ষ থেকে তাঁকে আনুষ্ঠানিক ভাবে অভিবাদন জানানো হল মঙ্গলবার সকালে।

 

মঙ্গলবার সকাল ১০টা নাগাদ রাষ্ট্রপতি ভবনে এসে পৌঁছয় ট্রাম্পের গাড়ি। রাইসিনা হিলে সস্ত্রীক মার্কিন রাষ্ট্রপতিকে রাজকীয় অর্ভ্যত্থনা জানান ভারতীয় রাষ্ট্রপতিরামনাথ কোবিন্দ। সঙ্গী ছিলেন তাঁর স্ত্রী সবিতাদেবীও। উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। 

আরও পড়ুন: ডাক পেলেন না সনিয়া, ট্রাম্পের সম্মানে আয়োজিত নৈশভোজ বয়কট কংগ্রেসের

 

অর্ভ্যত্থনার পর ডোনাল্ড ট্রাম্পকে দেশের তিন সেনা বাহিনীর তরফে 'গার্ড অব অনার' দেওয়া হয়। এদিন রাষ্ট্রপতি ভবনে ট্রাম্পকে সরকারি ভাবে অর্ভ্যত্থনা জানানোর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং ও বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকরও। এসেছিলেন ট্রাম্প কন্যা ইভাঙ্কা ও জামাই কুশনারও।

আরও পড়ুন: বাধা কাটিয়ে ২৬ ফেব্রুয়ারি উহানের পথে বায়ুসেনার বিমান, চিনে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২,৬০০

রাষ্ট্রপতি ভবনের অনুষ্ঠান শেষে রাজঘাটে গিয়ে মহাত্মা গান্ধীর সামধিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সঙ্গে ছিলেন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়াও। রাজঘাটে ভিজিটর বুকে স্বাক্ষরও করেন ট্রাম্প ও মেলানিয়া। এরপরেই ট্রাম্প রওনা দেন হায়দরাবাদ হাউসের উদ্দেশ্যে। সেখানে মোদীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে সামরিক সহ একাধিক চুক্তি স্বাক্ষরের কথা দুই দেশের মধ্যে। বৈঠক শেষে ট্রাম্পের সম্মানে দ্বিপ্রাহরিক ভোজের আয়োজন করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। এদিকে ট্রাম্প-মোদী বৈঠকের মাঠে দিল্লির সরকারি স্কুল সফরে যাবেন মেলানিয়া ট্রাম্প।