বৃহস্পতিবার মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-এর সরকারি টুইটার হ্যান্ডেল থেকে আচমকাই সরিয়ে দিয়েছিল তাঁর ডিসপ্লে পিকচার। ভেরিফায়েড হ্যান্ডেল হলেও অমিত শাহ-এর তার প্রোফাইল পিকচারে ক্লিক করলে কোনও ছবি দেখা যাচ্ছিল না। কপিরাইটধারীর অভিযোগের ভিত্তিতে এই কাজ করা হয়েছে, টুইটারে শুধু এটাই লেখা ছিল, আর কিছু বিশদে জানা যায়নি। একদিন পর এই বিষয়টি খোলসা করল সোশ্যাল মিডিয়া সংস্থাটি।  

শুক্রবার তার অফিসিয়াল হ্যান্ডেল অমিত শাহের প্রোফাইল ছবি সরানোর বিষয়ে টুইটার বলেছে, তাদের বৈশ্বিক কপিরাইট নীতি লঙ্ঘনের কারণেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল। টুইটার-এর মুখপাত্র এদিন বলেছেন 'অজান্তে ত্রুটির কারণে' কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর অ্যাকাউন্টটি লক-ও করে দেওয়া হয়েছিল। তবে, বিষয়টি সামনে আসতেই এই সিদ্ধান্তটি 'অবিলম্বে' ফিরিয়েও নেওয়া হয়েছে এবং অমিত শাহের অ্যাকাউন্ট এখন পুরোপুরি কার্যকরী, প্রোফাইল ফটোও আগের মতোই দেখা যাচ্ছে বলে জানানো হয়েছে সংস্থার তরফে।

টুইটারের কপিরাইট নীতিতে বলা হয়েছে: 'সাধারণভাবে কোনও ফটোগ্রাফের বিষয় নয়, ফটোগ্রাফারই সেই ফটোর প্রকৃত সত্ত্বাধিকারী।'  

বৃহস্পতিবার, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের ডিসপ্লে ছবিটি তাঁর অফিসিয়াল টুইটার হ্যান্ডেল থেকে সরিয়ে নেওয়া নিয়ে, ভারতীয় সোশ্য়াল মিডিয়া ব্যবহারকারীদের একাংশের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছিল। এমনকী সোশ্যাল মিডিয়ায় টুইটার নিষিদ্ধ করার দাবি ট্রেন্ড করতে শুরু করেছিল। তারপরই দ্রুত ছবিটি ফিরিয়েও দিয়েছিল টুইটার। তারপর এল এদিনের এই 'অজান্তে ত্রুটি'র বিবৃতি।