বিশ্বরেকর্ড গড়ল ডি'ক্রুজ পরিবার। একই পরিবারের জীবিত ভাইবোনদের সর্বাধিক সম্মিলিত বয়সের জন্য গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড বুকে নাম উঠল তাঁদের। এই পরিবারের ১২জন ভাইবোনের সম্মিলিত বয়স এখন ১০৪২ বছর এবং ৩১৫ দিন (১৬ ডিসেম্বর তাঁদের নাম নথিভুক্ত করেছে গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড)। ডি'ক্রুজ পরিবারের ভাইবোনদের বয়স ৯৭ থেকে ৭৫ বছরের মধ্যে। এই রেকর্ড গড়ার পর তাঁরা জানিয়েছেন এটা তাঁদের জীবনের অন্যতম প্রধান স্বীকৃতি।

ডি'ক্রুজ পরিবারের নয় বোন এবং তিন ভাই-এর সবার বড় ডোরেন লুইস জন্মেছিলেন ১৯২৩ সালের ২৩ সেপ্টেম্বর। তারপর একে একে জন্মান প্যাট্রিক ডিক্রুজ (জন্ম - ৩০ সেপ্টেম্বর, ১৯২৫), জেনেভিউ ফ্যালকাও (জন্ম - ৪ জুলাই ১৯২৭), জয়েস ডিসুজা (জন্ম - ২ মার্চ, ১৯২৯), রোনাল্ড ডি'ক্রুজ (জন্ম - ২৪ অগাস্ট, ১৯৩০), বেরিল কনডিল্যাক (জন্ম - ২৬ আগস্ট ১৯৩২), জো ডি'ক্রুজ (জন্ম - ১৯ জুন, ১৯৩৪), ফ্রান্সেসকা লোবো (জন্ম: ১৭ সেপ্টেম্বর ১৯৩৬), আলথেয়া পেকাস (জন্ম - ২৭ জুলাই, ১৯৩৮) ), টেরেসা হেডিঞ্জার (জন্ম ৯ জুন, ১৯৪০), রোজমেরি ডিসুজা (জন্ম ৩০ মার্চ ১৯৪৩) এবং সবার শেষে ১৯৪৫ সালের ২৪ অক্টোবর জন্মেছিলেন ইউজেনিয়া কার্টার।

এই স্বীকৃতির পর, জয়েশ ডিসুজা সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, এই বিশ্বরেকর্ড গড়তে পেরে তাঁর দুর্দান্ত অনুভূতি হচ্ছে। লাগছে। পরিবারের সব ভাইবোনই এখনও যে বেঁচে আছেন, এটাই তাঁর কাছে সবথেকে ভালো লাগার এবং গর্বের বিষয় বলে জানিয়েছেন ৯১ বছরের বৃদ্ধা।

বর্তমানে এই পরিবারের সদস্যরা কানাডা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং সুইজারল্যান্ডের বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকলেও, তাঁদের প্রত্যেকেরই জন্ম হয়েছিল পাকিস্তানের করাচিতে। বাবা-মা ছিলেন মাইকেল এবং সিসিলিয়া ডি'ক্রুজ। বছরে অন্তত তিনবার বড় বড় ছুটিতে তাঁদের একে অপরের সঙ্গে দেখা হয়। তবে এই বছর মহামারিজনিত কারণে পারিবারিক জমায়েত বাতিল করতে হয়েছে। তবে, নতুন স্বাভাবিকতার সঙ্গে মানিয়ে ডি'ক্রুজ-রা মিলিত হয়েছেন জুম চ্যাটের মাধ্যমে।