সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ব্যক্তিগত পোস্ট করে থাকেন অনেকেই। তবে কোনও ব্যক্তি যে পেশাতেই থাকুন না কেন তাঁর ব্যক্তিগত বিষয় সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করলে তা নিয়ে শোরগোল করা কতখানি যুক্তযুক্তি এই ঘটনার পরে এখন সেই প্রশ্নই উঠছে। 

সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে একজন অল্প বয়সী মহিলা শেয়ার করেছেন তাঁর বিকিনি পরা একাধিক ছবি। পেশায় তিনি একজন চিকিৎসক, পাশাপাশি মডেলিং-এর প্রতিও আগ্রহ রয়েছে তাঁর। আর একজন চিকিৎসক হয়ে কী করে তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় বিকিনি পরে ছবি পোস্ট করতে পারেন সেই নিয়েই চরম হয়রানির শিকার হন ওই চিকিৎসক। এখানেই শেষ নয়, এই অপরাধেই তিনি পেলেন চরম শাস্তি। মায়ানমার নিবাসী বছর আটাশের নং মি সান নামে ওই চিকিৎসকের লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে বলে খবর। 

অসমে এনআরসি আতঙ্ক, মহিলাকে পাঠানো হল ডিটেনশন ক্যাম্পে

সূত্রের খবর, টানা চার বছর ধরে জেনারেল ফিজিশিয়ান হিসেবে প্র্যাক্টিস করছেন মায়ানমার নিবাসী বছর আটাশের নং মি সান। তবে সম্প্রতি মডেলিং-এর প্রতি আগ্রহ বেড়েছিল তাঁর। আর সেই কারণে গত দু-বছর ধরে সেভাবে প্র্যাক্টিসও করেননি তিনি। তার ওপর সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন খোলামেলা পোশাক পরে ছবি শেয়ার করায় মায়ানমারের মেডিক্যাল কাউন্সিল-এর পক্ষ থেকেই বাতিল করা হয় তাঁর লাইসেন্স। নং মি জানিয়েছেন, তাঁর এই শাস্তি যাতে প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়, তার জন্য কাউন্সিলের কাছে আবেদন জানাবেন তিনি। তাঁর দাবি, তিনি যখন রোগী দেখেন, তখন তো এমন পোশাক পরেন না, তাহলে কেন তাঁর লাইসেন্স বাতিল করা হবে। অবশ্য এই বিষয়ে কাউন্সিল কোনও মন্তব্য করেনি।