মার্কিন হানায় নিহত ইরানি রেভেলিউশনারি গার্ড-এর প্রধান জেনারেল সোলেমানির শেষ যাত্রাও হয়ে উঠল মর্মান্তিক। সেই দেশের জাতীয় টেলিভিশন চ্যানেলের খবর অনুযায়ী নিহত ইরানি জেনারেলের শেষ যাত্রায় পদপিষ্ট হয়ে অন্তত ৩৫ জন নিহত ও আরও ৪৮ জন আহত হয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার জেনারেল সোলেমানির নিজের শহর করমান-এ। ইরানের টিভি চ্যানেল থেকে অনলাইনে পোস্ট করা প্রাথমিক ভিডিওগুলিতে দেখা গিয়েছে বহু প্রাণহীন দেহ রাস্তায় পড়ে রয়েছে। তাঁদের ঘিরে বাকিরা চিৎকার সাহায্যের জন্য।

ইরানের জরুরী চিকিৎসা পরিষেবার প্রধান পিরোসিন কৌলিভান্ড ওই টিভি চ্যানেলে টেলিফোনে এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনার কথা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, 'দুর্ভাগ্যক্রমে দুর্ঘটনার ফলে বেশ কয়েকজন দেশবাসী আহত হয়েছেন এবং অনেকেই শেষ যাত্রার শোভাযাত্রা চলাকালীন মারা গিয়েছেন'।

সোমবার, রাজধানী তেহরানে জেনারেল সোলেমানির স্মরণে একটি শোক মিছিল আয়োজন করা হয়েছিল। সেই মিছিলে প্রায় ১ কোটি মানুষ যোগ দিয়েছিলেন। এদিন অত্যন্ত জনপ্রিয় এই জেনারেলের শেষ যাত্রাতেও মানুষের ঢল নেমেছিল। আর তাতেই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায়। পদপিষ্টে হয়ে মৃত্যুর ঘটনায় মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এই মর্মান্তিক ঘটনার পর আপাতত জেনারেল কাশেম সোলেমানির শেষকৃত্য স্থগিত রাখা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। তবে এই খবরের সত্যতা বিচার করা যায়নি। এই ঘটমনার পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘটনার বেশ কিছু ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে।

সোলেমানির মৃত্যুর পর ইরানজুড়ে আমেরিকার বিরুদ্ধে প্রতিশোধ নেওয়ার আওয়াজ উঠেছে। এই হত্যার ঘটনায় গোটা মধ্যপ্রাচ্যেই এখন তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অবশ্য হুমকি দিয়েছেন, ইরান প্রতিশোধের পথে হাঁটলে আমেরিকা ইরানের অন্তত ৩৫টি জায়গায় আঘাত হানবে।