৩,৯২,০৭৮ - ইউনিসেফ জানিয়েছে, গোটা বিশ্ব ঠিক এতগুলিই শিশু জন্ম নিয়েছে ২০২০ সালের প্রথম দিনে। আর তারমধ্য়ে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক শিশুর জন্ম হয়েছে ভারতেই, ৬৭,৩৮৫ জন। এমনকি এই বিষয়ে আমাদের দেশ ছাপিয়ে গিয়েছে সবচেয়ে বেশি জনসংখ্যার দেশ চিনকেও। তালিকায় চিন রয়েছে ২ নম্বরে। ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি তাদের দেশে জন্মেছে ৪৬,২৯৯ জন শিশু।

প্রতি বছরই জানুয়ারির প্রথমদিনটিকে ইউনিসেফ বিশ্বব্যাপী শিশু জন্মের জন্য একটি শুভ দিন হিসেবে পালন করে। ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি দিনটি শুধু এই বছরের প্রথম দিনই নয়, এই দশকের প্রথম দিনও বটে। ইউনিসেফের এক্সিকিউটি ডিরেক্টর হেনরিটা ফোর বলেছেন, এই দিনটি শুধু পৃথিবীর বর্তমান বাসিন্দাদেরই নয়, পরবর্তী প্রজন্মের ভবিষ্যতের প্রতি তাদের আশা ও আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলনেরও দিন।

নতুন বছর প্রথম ঢোকে প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপরাষ্ট্রগুলিতেই। তা মেনেই এই বছর ও দশকের প্রথম শিশুটির জন্ম হয়েছে  প্রশান্ত মহাসাগরস্থ দেশ ফিজি-তে। আর সর্বশেষ শিশুটির জন্ম হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। ইউনিসেফ জানিয়েছে বছরের প্রথম দিনে জন্ম নেওয়া শিশুদের অর্ধেকেরও বেশির জন্ম হয়েছে মোট আটটি দেশে। এগুলি হল - ভারত (৬৭,৩৮৫), চিন (৪৬,২৯৯), নাইজেরিয়া (২৬,০৩৯), পাকিস্তান (১৬,৭৮৭), ইন্দোনেশিয়া (১৩,০২০), মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (১০,৪৫২), গণপ্রজাতান্ত্রিক কঙ্গো (১০,২৪৭) এবং ইথিওপিয়া (৮,৪৯৩)।

তবে একই সঙ্গে শিশু মৃত্যুর হার নিয়ে উদ্বিগ্ন ইউনিসেফ। ইউনিসেফের হিসাব অনুযায়ী ২০১৮ সালে ২৫ লক্ষ নবজাতকের জন্মের প্রথম মাসেই মৃত্যু হয়েছিল। আর প্রথম দিনই মৃত্যু হয়েছিল এদের প্রায় এক তৃতীয়াংশের। সবচেয়ে দুর্ভাগ্যের, এই শিশুদের বেশিরভাগেরই অকাল জন্ম, প্রসবকালীন জটিলতা এবং সেপসিস বা অন্য কোনও সংক্রামক রোগের মতো প্রতিরোধযোগ্য কারণে মৃত্যু হয়েছিল। ইউনিসেফ আরও জানিয়েছে প্রতি বছরই ২৫ লক্ষেরও বেশি শিশু মৃত অবস্থাতেই জন্মগ্রহণ করে।