তিন সপ্তাহ ধরে ভয়াবহ আগুনের করাল গ্রাসে চলে গিয়েছে আমাজনের বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল। এই ধরীত্রির ফুসফুস হিসাবে পরিচিত এই বিরাট বৃষ্টি অরণ্য বায়ুমণ্ডলের কুড়ি শতাংশ অক্সিজেনের যোগান দেয়। সেই অরণ্যে এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের জেরে কার্যত ভয়ের প্রমাদ গুনছে বিশ্ববাসী। 

মনুষ্যসৃষ্ট এই ঘটনার কার্যত তীব্র প্রতিবাদ করছেন নেটিজেনরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে হ্যাশট্যাগ প্রে ফর আমাজন। বিশ্ব উষ্ণায়ন প্রতিরোধ করতে আমাজনের বৃষ্টি অরণ্য ছিল অন্যতম ভরসার জায়গা, সেই জায়গা ক্রমশ হারিয়ে যাওয়ার ভয়ে প্রমাদ গুনছেন পরিবেশবিদরা। 

'আক্ষরিক অর্থে আমাদের ঘর পুড়ছে' আমাজনে দহন-কে আন্তর্জাতিক সঙ্কট বললেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট

আমাজন অরণ্যে এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের জন্য যে দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারো এতদিন এই প্রসঙ্গে কার্যত নিরুত্তর ছিলেন। আন্তর্জাতিক মহলে চাপের মুখে পড়ে অবশেষে চাপের কাছে নতি শিকার করলেন প্র সিডেন্ট। আমাজনের এই ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড নিয়ন্ত্রণ করতে সেনাবাহিনী নামাল ব্রাজিল সরকার। 

জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস অ্যামাজন! ব্রাজিলের দিনের বেলাই নেমেছে রাত - দেখুন ভিডিও

প্রসঙ্গত শুক্রবার আয়ারল্যান্ডের তরফে জানানো হয় যে, পরিবেশ সংক্রান্ত আন্তর্জাতিক চুক্তিগুলি লঙ্ঘন করেছে ব্রাজিল সরকার। বিষয়টি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে জানিয়েছেন 'আক্ষরিক অর্থে আমাদের ঘর পুড়ছে', যদিও তাঁর এই মন্তব্যকে কার্যত উড়িয়ে দিয়ে জাইর বোলসোনারো বলেন, রাজনৈতিক আখের গোছানোর জন্য ফরাসি প্রেসিডেন্ট এই ইস্যুটিকে হাতিয়ার করছেন। এই বিরাট অগ্নিকাণ্ডকে নিয়ন্ত্রণে আনার কোনও প্রচেষ্টাই কার্যত না করায় আন্তর্জাতিক মহলে তোপের মুখে পড়ে ব্রাজিল সরকার।

পুড়ছে আমাজন, চলছে প্রতিবাদ, কাঠগড়ায় দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট

এরপর ব্রাজিলকে আমাজনের আগুন নেভাতে সাহায্য করার জন্য এগিয়ে এসেছেন বলিভিয়ার রাষ্ট্রপতি ইভো মোরালেস। বলিভিয়া সরকারের তরফে জানানো হয়, সুপার ট্যাঙ্কার বোয়িং বিমান ৭৪৭ -এর সাহায্যে আকাশ পথে পুড়ে যাওয়া অরণ্যের ওপর জল ঢালা হবে। আন্তর্জাতিক  চাপের মুখে পড়েই এবার আমাজনের আগুন নেভাতে সেনাবাহিনী মোতায়েন করল ব্রাজিল সরকার। ব্রাজিলের কৃষি মন্ত্রকের তরফে এদিন জানানো হয় যে, আমাজনের জঙ্গলের গুরুত্ব সম্পর্কে ব্রাজিল সরকার ওয়াকিবহাল। তাই আমাজনের জঙ্গল বাঁচানোর সব চেষ্টাই করা হবে সরকারের তরফে।