পুড়ছে আমাজন। আগুনের লেলিহান শিখা গ্রাস করেছে আমাজনের বৃষ্টি অরণ্য।  আগুনের জেরে কুণ্ডলী পাকানো ধোঁয়া এতটাই তীব্র যে তা চোখে পড়ছে সুদূর মহাকাশ থেকেও। ক্রমশ আমাজনের একের পর এক অরণ্য অগ্নিদগ্ধ হওয়ার ঘটনা প্রকাশ্যে আসছে। 

প্রসঙ্গত এই আমাজনের বৃষ্টি অরণ্য প্রায় তিরিশ লক্ষ প্রজাতির পশুপাখীর বাসস্থান, যার মধ্যে রয়েছে বৃক্ষেরও বিভিন্ন প্রজাতিও। সেইসঙ্গে এই আমাজন অরণ্যে বসবাস করেন প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ। তবে চলতি বছরেই এই আমাজন বৃষ্টি অরণ্যে প্রায় সত্তর হাজারেরও বেশি দাবানলের ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে। দাবানলের এই প্রকোপ আগেরবারের সমস্ত রেকর্ডকে ছাপিয়ে গিয়েছে। এবছরে দাবানলের পরিমাণ অন্যান্যবারের থেকেও অনেক বেশি। ২০১৩ সালে হওয়া দাবানলের থেকে এবারের দাবানলের দ্বিগুণ। গতবারের থেকে প্রায় আশি শতাংশ বেশি। 

দ্বিপাক্ষিক আলোচনাই সমস্যার সমাধান, কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের পাশে ফ্রান্স

ভূমিধসে অবরুদ্ধ মানালি-লে জাতীয় সড়ক, ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস ওড়িশায়

প্রসঙ্গত, বিশ্ব উষ্ণায়ন প্রতিরোধ করতে আমাজনের বৃষ্টি অরণ্য ছিল অন্যতম ভরসার জায়গা। পাশাপাশি এই অরণ্য বায়ুমণ্ডলের প্রায় কুড়ি শতাংশ অক্সিজেন সরবরাহ করে। এখন সেই অরণ্য ধ্বংস হয়ে যাওয়া মানে বিশ্ব উষ্ণায়ন আরও খানিকটা বেড়ে যাওয়া। তবে এই দাবানল যে সর্বদা যে প্রাকৃতিক তা নয়,  মনুষ্য সৃষ্ট কারণও যে এই দাবানলের নেপথ্যে রয়েছে সেকথাও বলাই বাহুল্য। কারণ একাধিক রিপোর্টে প্রকাশ পেয়েছে অনেক মানুষ চাষাবাদের জন্য ইচ্ছাকৃতভাবে আগুন লাগিয়ে দেয় এই বৃষ্টি অরণ্যে। 

মিড-ডে মিলে নুন-রুটি, যোগী-রাজ্যে শিশুদের পাতে জুটল না সবজী-দুধ

ফাঁকা বাড়িতে চোরের সঙ্গে লড়াই, মায়ের দামি গয়না বাঁচাল খুদে

তবে এই দাবানলের জন্য কার্যত কাঠগড়ায় তোলা হচ্ছে দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারোকে।  তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, কোনও দিক বিচার না করেই ক্ষমতায় আসার আগেই আমাজন অরণ্যে চাষাবাদ ও খনিজ পর্দার্থ উত্তোলনের কথা বলেছিলেন তিনি। ঘটনা যাই হোক না কেন, বিশাল এই বৃষ্টি অরণ্য ধ্বংসের পথে এগোনোর কারণে টুইটারে শুরু হয়েছে প্রতিবাদ। শুরু হয়েছে হ্যাশট্যাগ প্রে ফর আমাজন। একাধিক বলিউড তারকাও টুইট করে তাঁদের মন্তব্য তুলে ধরেছেন।