গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পুড়ছে আমাজন বৃষ্টি অরণ্যের বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল। আগ্নিকাণ্ডের জেরে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে অসংখ্য গাছপালা-সমৃদ্ধ এই বনাঞ্চল। গত তিন সপ্তাগে একের পর এক বনাঞ্চল। আর এই বিস্তীর্ণ বনাঞ্চল আগুনের করাল গ্রাসে চলে যেতে দেখে প্রমাদ গুনছেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইম্যান্যুয়েল মাঁকর। 

এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় টুইট করে ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাঁকর, আমাজনের দহনকে আন্তর্জাতিক সঙ্কট বলে ব্যাখ্যা করেছেন। মাঁকর জানিয়েছেন, আমাজনের জঙ্গলে রেকর্ড সংখ্যক অগ্নিকাণ্ড কার্যত আন্তর্জাতিক সঙ্কট ডেকে এনেছে। আসন্ন জি৭ সামিটে এই বিষয়টি সমস্ত এজেন্ডার শীর্ষে থাকা উচিত বলেও দাবি করেন মাঁকরর। 

পুড়ছে আমাজন, চলছে প্রতিবাদ, কাঠগড়ায় দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট

এদিন নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে প্রেসিডেন্ট মাঁকর লেখেন, 'আক্ষরিক অর্থে আমাদের বাড়ি জ্বলছে। আমাজন বৃষ্টি অরণ্যে পৃথিবীর ফুসুফুস, যা পৃথিবীকে ২০ শতাংশ অক্সিজেন সরবরাহ করে, তাই এখন পুড়ছে। এটি একটি  আন্তর্জাতিক সঙ্কট। জি৭ সামিটের সদস্যরা আসুন। এই জরুরী অবস্থাটি নিয়ে আগামী দু'দিনের মধ্যেই আলোচনায় বসা যাক'। 

সাম্প্রতিককালে প্রকাশিত একটি সমীক্ষা থেকে জানা গিয়েছে, চলতি বছরে ব্রাজিলে আমাজনের বিস্তীর্ণ অরণ্যে প্রায় ৭৫ হাজারেরও বেশি বার আগুন লেগেছে। ২০১৮ সালে এই অগ্নিকাণ্ডের সংখ্যা ছিল প্রায় ৪০ হাজারেরও বেশি। প্রসঙ্গত ব্রাজিলের আমাজনের এই দাবানলের জন্য কার্যত দায়ি করা হচ্ছে ব্রাজিলের দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট জাইর বোলসোনারোকে।  তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ,  ক্ষমতায় আসার আগেই আমাজন অরণ্যে চাষাবাদ ও খনিজ পর্দার্থ উত্তোলনের কথা বলেছিলেন তিনি।

জ্বলছে পৃথিবীর ফুসফুস অ্যামাজন! ব্রাজিলের দিনের বেলাই নেমেছে রাত - দেখুন ভিডিও

যদিও সমস্ত দায় কার্যত অস্বীকার করেছেন জাইর বোলসোনারো। ফরাসি প্রেসিডেন্ট মাঁকর-এর এই মন্তব্যের পাল্টা জবাবে তিনি বলেছেন, রাজনৈতিক আখের গোছানোর জন্য ফরাসি প্রেসিডেন্ট এই ইস্যুটিকে হাতিয়ার করছেন। তবে বিষয়টি যা-ই হোক না কেন এটি যে আদতে  আন্তর্জাতিক সমস্যা তা বোঝা যাবে সাধারণ মানুষের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট থেকে।এই ঘটনার কার্যত তীব্র প্রতিবাদ করছেন সকল মানুষ। সোশ্যাল মিডিয়ায় শুরু হয়েছে হ্যাশট্যাগ প্রে ফর আমাজন।