উৎপতিস্থল চিনে ক্রমশ সংক্রমণ কমে আসতে শুরু করেছে, কিন্তু বিশ্বজুড়ে ভয়াবহ গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। প্রতিদিনই নতুন করে আক্রান্তের খবর পাওয়া যাচ্ছে পৃথিবীর নানা প্রান্ত থেকে। দুনিয়াজুড়ে সরকারগুলোর প্রধান চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে এই মারণ ভাইরাসের মোকাবিলা করা। করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা গিয়ে পৌঁছেছে ৯৫,৪৮১। এরমধ্যে অর্ধেকের বেশি মানুষ সুস্থ হলেও মারা গিয়েছে প্রায় ৩,২85 আক্রান্ত। এদের মধ্যে অধিকাংশই চিনের মূল ভূখণ্ডের বাসিন্জা হলেও দেশটির বাইরে ইরান, ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়া, জাপানেও এখন ভয়াবহ গতিতে ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস।

ইতালি
চিনের বাইরে করোনা সবচেয়ে মারাত্মক আকার নিয়েছে ইতালিতে। ইউরোপের এই দেশে করোনার বলি হয়েছেন কমপক্ষে  ১০৭ জন। আক্রান্তের সংখ্যা তিন হাজারের বেশি।  পরিস্থিতি সামলদিতে যেকোন ধরণের সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছে ইতালি সরকার। এমনকি ইতালিতে জনপ্রিয় ফুটবল ম্যাচগুলি দর্শকহীন স্টেডিয়ামে খেলান হচ্ছে। আগামী ৩ এপ্রিল পর্যন্ত এই নিয়ম বলবৎ থাকবে বলে জানিয়েছেন ইতালির প্রাইম মিনিস্টার। বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে স্কুল কলেজ। 

 

 

ইরাক
মধ্যপ্রাচ্যের ইরাকেও থাবা বসিয়েছে করোন। ইতিমধ্যে রাজধানী বাগদাদে দ্বিতীয় করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

সৌদি আরব
সৌদি আরবেও সন্ধান মিলেছএ করোনা আক্রান্তের। ইরান থেকে বাহরিন হয়ে সৌদি আরবে প্রবেশ করা ব্যক্তির রক্তপরীক্ষায় করোনা ভাইরাসের পজিটিভ নমুনা মিলেছে। 

আরও পড়ুন: পাক টিভিতে শো চলাকালীন চেয়ার থেকে পড়ে গেলেন অতিথি, নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হল ভিডিও

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
পৃথিবীর সবচেয়ে শক্তিধর দেশ আমেরিকাও বাঁচতে পারেনি করোনার থাবা থেকে। করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধে জরুরী ভিত্তিতে ৮.৩ বিলিময় মার্কিন ডলার অনুমোদন করেছে মার্কিন কংগ্রেস। 

ইরান
ইতালির পর ইরানেও করোনা মারাত্মক আকার নিয়েছে। কোভিড-১৯ ভাইরাসের ছোবলে মৃতের সংখ্যা পৌঁছে গেছে  ৯২। আক্রান্তের সংখ্যা ২.৯২২। নতুন করে ৫৮৬ জনের শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে।

আরও পড়ুন: নতুন বাড়িতে থাকতে এসেছেন দম্পতি, অর্ভ্যত্থনায় এগিয়ে এল ১৫০টি সাপ

জাপান
জাপানেও হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন মারণ করোনা ভাইরাসে। এদিকে আর কয়েকদিন পরেই অলিম্পিকের আসর বসতে চলেছে রাজধানী টোকিওতে। তবে করোনা আতঙ্কে অলিম্পিক এখনও বাতিল করা হয়নি। তাই প্রস্তুতি চলছে জোরকদমে।

দক্ষিণ কোরিয়া
গত ২৬ ফেব্রুয়ারির করোনার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট। ইতিমধ্যে দেশের ৫,৬২১ জন মানুষ আক্রান্ত এই মারণ ভাইরাসে। মৃতের সংখ্যা ৩২। বুধবার নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩৫ জন। এই অবস্থায় দক্ষিণ কোরিয়ার সরকার বাজাটে অতিরিক্ত  ১০ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দ করেছে। 

 

 

এখনও পর্যন্ত বিশ্বের ৭০টিরও বেশি দেশে ছড়িয়েছে করোনা। যার মধ্যে রয়েছে আলজিরিয়া, সুইডেন, ফ্রান্স, মরক্কো, হাঙ্গেরি, ইজরায়েল, মিশর, আয়ারল্যান্ড, ব্রিটন। করোনা আতঙ্কে বাতিল করা হয়েছে লন্ডন বুক ফেয়ার। এদিকে হংকং-এ এক মনিবের থেকে করোনা ছড়িয়েছে তাঁর পোষ্য কুকুরের দেহে।