করোনা আতঙ্ক এখন ছড়িয়ে পড়েছে সর্বত্র।  একজনের থেকে আরেকজনের শরীরে ছড়িয়ে পড়া এই ভাইরাসের আতঙ্কে জেরবার বিশ্ববাসী । মানুষের সংস্পর্শেই সংক্রমিত হচ্ছে এই করোনা ভাইরাস । মানুষের নিঃশ্বাস প্রশ্বাসের সঙ্গেই ছড়িয়ে যাচ্ছে এই রোগের জীবানু। যত দিন যাচ্ছে ততই যেন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে ভাইরাসে আক্রান্ত সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত করোনার মারণ থাবা বসাতে পারেনি এই দেশে। এককথায় সাফল্যের সঙ্গেই মারণ রোগের  সঙ্গে লড়াই করছে ভুটান। 


ফের নতুন করে লকডাউন ঘোষণা করল এই দেশ। গত মঙ্গলবারই  নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এক মহিলা । এবং স্বাস্থ্য মন্ত্রকের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে,  ফের করোনা ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা তৈরি হওয়ার আগেই বুধবার থেকেই একটানা ৭ দিনের লকডাউন জারি করেছে ভুটান। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে বিশেষ বিজ্ঞপ্তি ঘোষণায় জানানো হয়েছে ,  এই ৭ দিনের লকডাউনে প্রত্যেককে বাড়িতে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, সমস্ত স্কুল কলেজ, অফিস, ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান বন্ধ করারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।
 
ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর দফতর আরও জানিয়েছে,  আন্তঃরাজ্য যাতায়াত ব্যবস্থাতেও নিষেধাজ্ঞা আনা হয়েছে। করোনা লামোইজিংখা, পারো, থিম্পুতে ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস।  ইতিমধ্যেই ভুটান থেকে  বিদেশ ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে, তেমনই বিদেশ থেকেও বিমান পরিষেবা বন্ধ করে ভ্রমণার্থীদের আসাও বন্ধ করা হয়েছে। শুধুমাত্র অত্যবশ্যকীয় পণ্য পরিষেবা চালু থাকবে বলে জানানো হয়েছে। করোনা রুখতে তৈরি করা হয়েছে নো এন্ট্রি জোন। অন্যদিকে করোনার নতুন স্ট্রেন নিয়ে হইচই পড়ে গিয়েছে গোটা বিশ্বে। ভারত সহ প্রায় ১২ টি দেশ ব্রিটেন থেকে আগত বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। নতুন করোনা সংক্রমণের দেখা মিলেছে  কমপক্ষে পাঁচটি দেশে। যার ফলে বিশ্বের অন্যান্য দেশও আতঙ্কে কাঁপছে।