ফেসবুক এবার নামতে চলেছে অনলাইন বাণিজ্য লেনদেনে। আর সেই কারণের ফেসবুক এবার বাজারে নিয়ে আসতে চলেছে ভার্চুয়াল মুদ্রা বা ক্রিপ্টোকারেন্সি। নয়া এই মুদ্রা অনেকটা 'বিটকয়েন'-এর মতোই। প্রসঙ্গত এই ক্রিপ্টোকারেন্সি এমনই এক মুদ্রা যা কোনও বিল বা পয়সার আকারে বিরাজ করে না। বরং ক্রেতা-এবং বিক্রেতাদের মধ্যে এই মুদ্রার লেনদেন করা হয় ভার্চুয়ালি। ফেসবুক নয়া যে ক্রিপ্টোকারেন্সসি বাজারে নিয়ে এসেছে তার নাম 'লিব্রা'।  

জানা গিয়েছে যে, ভার্চুয়াল মুদ্রা চালু করতে ফেসবুক ভিসা, মাস্টার কার্ড-সহ বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে যুক্ত হতে চলেছে। ইতিমধ্যেই 'ক্যালিব্রা' নামক একটি ডিজিটাল ওয়ালেট পরিষেবা শুরু করতে চলেছে। যা অনেকটা ফোন পে, পেটিএম বা গুগল পে-র মতোই। এই ওয়ালেটের মাধ্যমেই এই ভার্চুয়াল মুদ্রা আদান-প্রদান, খরচ ও জমানো যাবে। ফেসবুকের দুটি মেসেজিং অ্যাপ অর্থাৎ হোয়াটস অ্যাপ এবং মেসেঞ্জারের সঙ্গে যুক্ত থাকবে এই ডিজিটাল ওয়ালেট। 

টেক দুনিয়ায় নতুন কী কী এল, জেনে নিন এক ঝলকে

তবে এই পরিষেবা কতখানি সুরক্ষিত তা নিয়ে অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের কপালে ভাঁজ পড়েছে। কারণ তাঁদের মতামত, ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্যাবলী এবং নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। অনেকে আবার ফেসবুকের এই ভার্চুয়াল মুদ্রা পরিষেবার জেরে লোকসান হতে পারে-এমন আশঙ্কাও প্রকাশ করছেন। কারণ করের ক্ষেত্রে ভার্চুয়াল মুদ্রায় সরকারি নজরদারি কীভাবে করা হবে সেই বিষয়েও উঠছে প্রশ্ন।