শ্রীলঙ্কায় নতুন প্রেসিডেন্ট হলেন গোতাবায়া রাজাপক্ষ। রাজাপক্ষের জয়ে বেশ কিছুটা চাপেই থাকবেন তামিল ও ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা বলে মনে করা হচ্ছে।  জয় ঘোষণা করতে গিয়ে শ্রীলঙ্কার গৃহমন্ত্রী প্রেমদসা জানিয়েছেন, জনগণের রায় মাথা পেতে নেওয়া হবে। রাজপক্ষের শক্তিশালী ঘাঁটি সিংহলি অধ্যুষিত এলাকায় সব থেকে বেশি ভোট পেয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। 

সন্ত্রাসবাদকে হাতিয়ার করে গোতাবায়া রাজাপক্ষ এবারের নির্বাচনী প্রচার চালিয়েছেন। চলতি বছর এস্টার ডের দিন শ্রীলঙ্কায় ধারাবাহিক বিস্ফোরণ হয়। এই বিস্ফোরণে প্রায় ২৪৯ জন নিহত হন। এরপর থেকেই গোতাবায়া রাজাপক্ষ  তাঁর নির্বাচনী প্রচারে সন্ত্রাসবাদ দমন ও দেশের সাধারণ মানুষকে নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। আর তাতেই মানুষ তাঁকে বেছে নিয়েছেন বলে মনে করা হচ্ছে।  ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গোতাবায়া রাজাপক্ষকে টুইটারে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, 'গোতাবায়া রাজাপক্ষ, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয় লাভের জন্য আপনাকে শুভেচ্ছা। আমরা দুই দেশ ও দেশের নাগরিকদের জন্য শান্তি, সমৃদ্ধি ও সমগ্র উপমহাদেশের নিরাপত্তার জন্য একজোট হয়ে কাজ করার জন্য আধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি।'

শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি মাহিন্দা রাজাপক্ষের ভাই গোতাবায়া রাজাপক্ষ। তিনি এক সময়ে দেশের প্রতিরক্ষা সচিব ছিলেন। এমনকী এলটিটিই  এর বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের অবসানও তাঁর হাত ধরেই।  শনিবার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শ্রীলঙ্কা জুড়ে একাধিক বিক্ষিপ্ত অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। এসবের পরেও শ্রীলঙ্কার এক কোটি ৬০ লক্ষ মানুষ বুথে গিয়ে ভোট দিয়েছেন বলে দেশের নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে।