এপ্রিল মাসে সুস্থ হয়েছিলেন। কিন্তু তারপরে কাটল না পাঁচ মাস। তারই মধ্যে আবার নতুন করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত হলেন হংকং-এর এক ৩৩ বছরের বাসিন্দা। করোনা আক্রান্ত অবস্থায় তাঁর চিকিৎসাও হয়েছিল। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি। তারপরই ব্যক্তিগত প্রয়োজনে স্পেন সফরে যান। আর অগাস্টের মাঝামাঝি সেখান থেকে ফিরে আসেন। বিমান বন্দরে স্ক্রিনিংএর সময় ধরা পড়ে ওই ব্যক্তি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। 


হংকং-এর মাইক্রোবায়োলজিস্ট কেলভিন কাই ওয়াং জানিয়েছেন আক্রান্ত ব্যক্তির কোনও উপসর্গ ছিল না। আগের বার তিনি যখন করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন তখন তার দেহে মৃদু উপসর্গ ধরা পড়েছিল। কিন্তু  সুস্থ হয়ে ওঠার পর তিনি কী করে এত তাড়াতাড়ি সংক্রমিত হলেন তাই নিয়েই উঠছে প্রশ্ন। 

হংকং-এর বিজ্ঞানীরা সংক্রামণ রোগের জন্যই প্রকাশিত একটি জার্নালে বলেছেন আক্রান্ত ব্যক্তি দুবার দুটি পৃথক প্রজাতির করোনার জাবীণুর দ্বারা আক্রান্ত হয়েছিলেন। তাঁরা আরও বলেছেন আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে এমন কোনও উপসর্গ দেখা যায়নি যা পরবর্তীকালে সংক্রমণকে মাঝারি করতে পারে। বিশেষজ্ঞরা রীতিমত আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেছেন এই থেকে কিছুটা হলে স্পষ্ট হচ্ছে যে করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে মানব শরীরে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী হচ্ছে না। তাই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা আরও বাড়বে বলেই তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। 

গালওয়ানের ওপার থেকে লানাক লা, বাড়ছে ড্রাগনের নিঃশ্বাস, রীতিমত যুদ্ধের দামামা বাজাচ্ছে চিন ...

ইনজেকশনে ভয় পান আপনি, তাহলে করোনা মোকাবিলায় আপনার চাই ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষধক

হংকং-এর এই ঘটনায় রীতিমত উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছেন ব্রিসবনের কিউআইএমআর বার্গোফার মেডিক্যাল রিসার্চ ইনস্টিটিউটের প্রধান কোরি স্মিথ। তিনি বলেছেন, হংকং-এর ব্যক্তি দ্বিতীয় বার যখন সংক্রমিত হয়েছিলেন তখন তাঁর শরীরে কোনও উপসর্গ ছিল না। তার মানে এই যে ভাইরাসটি নিঃশব্দে সংক্রমণ পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছে।  যা আরও ভয়ের বলেই তিনি মনে করেছেন। আমেরিকার ইনফেকসাস ডিজিস সোসাইটির সভাপতি থমাসের প্রশ্ন, প্রথমবার সংক্রমণের কতক্ষণ পর মানুষ দ্বিতীয়বার সংক্রমিত হতে পারেন?  

পাঠান চাচাই সম্প্রদান করলেন হিন্দু ভাগ্নিদের, সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল বিদায়ের ছবি ...