ফেসবুকে মহিলার উদ্দেশ্যে কটূক্তির পাশাপাশি মহিলাকে ধর্ষণের হুমকি দিয়ে বিপাকে পড়েছেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত দুবাইয়ের শেফ। তাঁর গ্রেফতারের দাবিতে সরব হয়েছেন শতাধিক মানুষ। অভিযুক্ত শেফ ত্রিলোক সিং। দীর্ঘ দিন ধরেই কাজ করতেন দুবাইয়ের হোটেল লতিফে। তবে  ধর্ষণের হুমকি দেওয়ার খবর ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই নড়চড়ে বসছে হোটেল কর্তৃপক্ষ। লতিফ হোটেলের পক্ষ থেকে জানান হয়েছে গত দুবছর ধরে ত্রিলোকের সঙ্গে হোটেলের কোনও সম্পর্ক নেই। একই সঙ্গে তাঁর আচরণেরও তীব্র সমালোচনা করা হয়েছে। অন্যদিকে দুবাই পুলিশও বিষয়টি নিয়ে যথেষ্ট তৎপর। অভিযোগ প্রমান হলে দুবাইয়ের সাইবার ক্রাইম আইন অনুযায়ী কয়েক লক্ষ টাকা জরিমানা দিতে হবে ত্রিলোক সিংকে। 

আরও পড়ুনঃ বাড়ি ফেরার সব পথ বন্ধ, 'দমবন্ধকর অবস্থা'য় ইরান থেকে ভিডিও বার্তা কলকাতার ছেলের, দেখুন

ভারতীয় মহিলা স্বাতী খান্নার উদ্দেশ্যে ফেসবুকে একাধিকবার অশালীন মন্তব্য করেছেন ত্রিলোক সিং। সেখানেই তাঁকে ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয়েছে। ত্রিলোক হিন্দিতেই স্বাতী সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য করেছেন বলে অভিযোগ। দুবাইয়ের এই ঘটনার সূত্রপাতও ভারতের নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে। গায়িকা স্বাতী খান্নার যার তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন। সোশ্যাল মিডিয়াতেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ভূমিকার তীব্র সমালোচনা করেছিলেন। তারই উত্তর দিতে গিয়ে চড়া সুরেই স্বাতীকে আক্রমণ করেন ত্রিলেক। তিনি বলেন, ভারতের খেয়ে  পাকিস্তানের হয়ে গান করেন স্বাতী। তাই নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতা করছেন তিনি। তবে নিজের অবস্থানে অনড় ছিলেন স্বাতী। তিনি লিখেছিলেন, তিনি একটি মুসলিম দেশে থাকেন। সেই দেশে বসবাসকারী সকলেরই নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদ করা উচিৎ। তারপরই ত্রিলোক স্বাতীর উদ্দেশ্য অশালীন মন্তব্য করেন। তিনি লেখেন দিল্লিতে গেলে স্বাতীকে ধর্ষণ করে দেওয়া হবে।

আরও পড়ুনঃ দলজিতের সঙ্গে তাজ দর্শন থেকে সাইকেলে চড়ে ভ্রমণ, ভারতীয়দের সৃজনশীলতায় মুগ্ধ ইভাঙ্কা 

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভারতীয় বংশোদ্ভূত এই শেফের অশালীন মন্তব্য ঘিরে তোলপাড় শুরু করে দিয়েছে নেটিজেনরা। তবে ইতিমধ্যেই ত্রিলোক সিং-তাঁর ফেসবুক থেকে মন্তব্য মুছে দিয়েছেন।  কিন্তু তাতেও বাঁচার কোনও আশা নেই বলেই মনে করছেন অনেকে। কারণ দুবাইয়ের সাইবার ক্রাইম আইন খুবই কড়া। এর আগে গত বছরই দুবাই থেকে এক ব্যক্তি নিউজিল্যান্ডের জঙ্গি হামলা নিয়ে মন্তব্য করে শাস্তির মুখে পড়েছিলেন। তাই মনে করা হচ্ছে অভিযোগ প্রমান হলে কড়া শাস্তির মুখে পড়তে হবে ভারতীয় বংশোদ্ভূত দুবাইয়ের শেফ ত্রিলোককে। যিনি এখন  থাকেন  ইউনাইটেড আরব আমিরসাহীতে। তবে বর্তমানে তিনি কোথায় কর্মরত তা এখনও স্পষ্ট নয় তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ার প্রফাইলে।