ইয়াব্বড়া এক জাহাজ। যার ওজন ১৭ হাজার টন।  সেখানে থাকবে ওয়াইফাইয়ের বন্দোবস্ত। প্রত্য়েককে দেওয়া হবে একটি করে ট্য়াব।  আর সেখানেই রাখা হবে করোনাভাইরাস আক্রান্তদের। জাপানে এখন চলছে এমনই এক অভিনব প্রস্তুতি।

চিনে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্য়া সাড়ে পাঁচশোর কাছে পৌঁছেছে। শুধু চিনেই নয়, ওই ভাইরাসে সংক্রামিত রোগীর সন্ধান পাওয়া গিয়েছে বিশ্বের আরও অন্তত ২৫ টি দেশে। যার মধ্য়ে রয়েছে জাপানও। এমতাবস্থায়, আক্রান্তদের আলাদা করে রাখার জন্য় যখন বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন উপায় খুঁজছে,  তখন জাপান বার করেছে এক অভিনব পদ্ধতি।  সেখানে ইয়োকোসুকা বন্দরে সম্প্রতি ভিড়েছে ১৭ হাজার টনের একটি জাহাজ, নাম হাকুয়ো। এই হাকুয়োতেই করোনাভাইরাস আক্রান্তদের আলাদা করে রাখা হবে বলে জানা গিয়েছে।

ওই জাহাজে  বেশ কিছুদিন ধরে  আক্রান্তরা যাতে নিরাপদে থাকতে পারেন, তার জন্য় জোরকদমে প্রস্তুতি চলছে। জানা গিয়েছে, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে প্রাথমিকভাবে ৯৪জন থাকতে পারবেন ওই জাহাজে। পরের দিকে অবশ্য় আরও বেশি আক্রান্তদের জায়গা হবে ওই জাহাজে। দাবি করা হচ্ছে, মোটের ওপর প্রায় তিনশোজন স্বচ্ছন্দে থাকতে পারবেন ওই জাহাজে।  তবে তার সর্বোচ্চ ধারণ ক্ষমতা ৫০০। যদিও তাতৈ করে বাথরুমে বেশ লম্বা লাইন পড়বে বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই সাড়ে তিনহাজার মানুষকে, যাঁরা করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন  বলে মনে করা হচ্ছে, তাদের একটি ক্রুজে আলাদা করে রাখা হয়েছে। জাপানের স্বাস্থ্য় আধিকারিক জানিয়েছেন, এর মধ্য়ে অন্তত দশজনের রক্তে করোনাভাইরাসের জীবাণু পাওয়া গিয়েছে। আক্রান্তের সংখ্য়া আরও বাড়তে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত, করোনাভাইরাস যাতে ছড়িয়ে না-পড়ে, তা নিয়ে যখন বাকি দেশগুলো যথেষ্ট আঁটোসাটো করেছে তাদের স্বাস্থ্য় নিরাপত্তা ব্য়বস্থাকে, তখন জাপান যথেষ্ট ঢিলেঢালা ছিল বলেই অভিযোগ উঠেছে।  চিনের উহান থেকে যাঁরা সম্প্রতি ফিরে এসেছেন, তাঁদের যখন আলাদা করে রাখা হচ্ছে, আক্রান্ত বা সম্ভাব্য় আক্রান্তদের যখন কড়া নজরে রাখা হচ্ছে, তখন  জাপান সেরকম কোনও পদক্ষেপ করেনি বলেই অভিযোগ।

জাপানে এখনও পর্যন্ত করোনাভাইরাসে  ৩৩ জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। যাঁদের মধ্য়ে ১৭ জন উহান থেকে ফেরত এসেছেন আর ১০ জন ক্রুজে রয়েছেন বলা জানা গিয়েছে। চিনের হুবেই প্রদেশে থেকে জাপানে কাউকে আর আসতে দেওয়া হচ্ছে না। চিনের অন্য় প্রদেশ থেকে আসা লোকজনের ওপরও এবার নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে চলেছে জাপান।

জানা গিয়েছে, হাকুয়ো নামক জাহাজটিকে চারপাশ থেকে বিচ্ছিন্ন রাখা হবে বেশ কিছুদিনের জন্য়। জাহাজে যাঁরা থাকবেন, সময় কাটানোর জন্য় তাঁদের প্রত্য়েককে দেওয়া হবে একটি করে ট্য়াব। থাকবে ওয়াইফাইয়ের বন্দোবস্তও।