মানচিত্র নিয়ে গত কয়েকদিন ধরেই ভারতের সঙ্গে এককালের বন্ধু নেপালের বিবাদ ক্রমেই বাড়ছে। এরমধ্যেই সম্প্রতি নিজেদের দেশে ভারতীয় চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করেছে নেপাল। একমাত্র দূরদর্শ ছাড়া সেখানে আর কোনও ভারতীয় চ্যানেল দেখা যাচ্ছে না। কিন্তু বিগ বি-র অসুস্থতা ভারত বিরোধী নেপালি প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলিকেও নাড়িয়ে দিয়ে গেল। বচচ্ন পরিবারের আরোগ্য কামনায় ট্যুইট করলেন চিন ঘনিষ্ঠ ওলি।

আরও পড়ুন: নিউ নর্মালে নতুন স্টাইল স্টেটমেন্ট, সোনার পর এবার চাহিদা বাড়ছে হিরের তৈরি মাস্কের

সীমান্ত নিয়ে বিবাদের মাঝেই নেপালি প্রধানমন্ত্রী ট্যুইটে লেখেন, "প্রবাদপ্রতীম অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন এবং তাঁর পুত্র অভিষেকের আরোগ্য কামনা করি। "

 

 

সাম্প্রতিক কালে ভারতের সঙ্গে সংঘাতের পথেই হেঁটেথেন নেপালি প্রধানমন্ত্রী। চিনের প্রভাবে নেপালে বর্তমানে  ভারত বিরোধী হাওয়া বেশ সক্রিয়। সম্প্রতি নেপালেপ পার্লামেন্টে নতুন মানচিত্র অনুমোদ করেছে।  যেখানে ভারতের একাধিক ভূখণ্ড নিজেদের বলে দাবি করেছে নেপাল। এই নিয়ে দুদেশের মধ্যে কূটনৈতিক উত্তেজনা রয়েছে। 

আরও পড়ুন: ফেস শিল্ড না মাস্ক, করোনা সংক্রমণ আটকাতে কাকে এগিয়ে রাখছেন বিশ্বের তাবড় বিশেষজ্ঞরা

এই পরিস্থিতিতে নেপালে বাড়ছে রাজনৈতিক ডামাডোলও। প্রধানমন্ত্রী ওলির অতিরিক্তি ভারত বিরোধিতার জন্য তাঁর দল নেপাল কমিউনিস্ট পার্টির একাধিক নেতাও এখন ওলির পাশে নেই। এই অবস্থায় ওলিকে বাঁচাতে তৎপর বেজিং। নেপালে নিযুক্ত চিনের রাষ্ট্রদূত হউ ইয়ানচিকে ময়দানে নামতে হয়েছে। এদিকে তাঁকে উৎখাত করতে ভারত ষড়য়ন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করে চলেছেন ওলি। এর মাঝেই অবশ্য ভারতীয় অভিনেতার অসুস্থতার খবরে বিরোধ সরিয়ে ট্যুইট করতে দেখা গেল নেপালি প্রধানমন্ত্রীকে। কারণ বিশ্বের নানা প্রান্তের মতই নেপালেও অমিতাভ বচ্চনের প্রচুর ভক্ত রয়েছেন। আর বিগ বি-র মক অভিনেতার কখনই দুই দেশের সম্পর্কের ওঠা-নামার মধ্যে পড়েন না। তাদের বিস্তার হয় সর্বত্র। ভারতে নিযুক্ত ফরাসি রাষ্ট্রদূতও বিগ বি-র সুস্থতা কামনায় ট্যুইট করেন। লেখেন,  বিশ্বে বিগ-বি-র অগণিত ভক্তের মতো তিনিও চান  অভিনেতা ও তাঁর পরিবারের সকলে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুন।