প্রতিনিয়ত আবহাওয়ার পরিবর্তন, জলবায়ুর সতত বদলে যাওয়ার জন্য অনেকাংশে দায়ি হল বৃক্ষচ্ছেদন। আর এই বৃক্ষচ্ছেদনের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে হারিয়ে যাওয়া সবুজকে ফিরিয়ে আনতে এক অভিনব উপায় আবিষ্কার করেছে ফিলিপিন্স। বৃক্ষরোপণের জন্য সেদেশে চালু হতে চলেছে এক নয়া আইন। নয়া এই আইন বলে, সেদেশের প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে নূন্যতম ১০টি করে গাছ লাগালে তবেই মিলবে স্নাতকের মানপত্র। 

এদেশে প্রথমবার গাছেদের জন্য চালু হল অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা

ভোটের পারদ কমতেই, বাড়ল তাপপ্রবাহ, রাজধানী-সহ একাধিক জায়গায় জারি 'রেড অ্যালার্ট'

তবে শুধু নিয়মই নয়, আইন করে গাছ লাগোনোকে বাধ্যতামুলক করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেদেশের সরকার। মনে করা হচ্ছে, নতুন এই আইনের প্রবর্তন করা হলে, প্রতি বছর ১৭৫ মিলিয়ন বৃক্ষরোপণ করা সম্ভব হবে। ইতিমধ্যেই ফিলিপিন্স-এর হাউস অব রিপ্রেসেন্টেটিভ-এর পক্ষ থেকে 'গ্র্যাজুয়েশন লেগাসি ফর দ্য এনভায়রনমেন্ট অ্যাক্ট' নামে এই আইনের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। তবে এই আইনটি কলেজের পাশাপাশি সেদেশের উচ্চ বিদ্যালয়েও এই আইনটি লাগু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

দীর্ঘদিন ধরে বৃক্ষচ্ছেদনের ফলে ফিলিপিন্সে বনাঞ্চলের পরিমাণ দিন দিন কমে আসছিল, যার ফলে বন্যা এবং ভুমিধসের পরিমাণ বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হয়েছিল। আর এই কারণেই আরও এই বৃক্ষরোপণ করা আবশ্যক হয়ে উঠেছিল। ফিলিপিন্সের সরকার নির্দেশ দিয়েছেন দেশের শহর ও গ্রামাঞ্চলে, মিলিটারিদের জন্য সংরক্ষিত এলাকা-সহ দেশের ম্যানগ্রোভ অরণ্যেও এই বৃক্ষরোপণ কর্মসূচী গ্রহণ করা হবে।