ভরা জনসভায় বক্তৃতা দিচ্ছেন ফিলিপিন্স-এর রাষ্ট্রপতি ৭৪ বছরের রড্রিগো দুতেরতে। সবকিছুই ঠাকঠাকই চলছিল। কিন্তু বক্তৃতা শেষে তিনি যা করলেন, তাতেই অবাক অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলে। আর ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই চমকে উঠেছে গোটা বিশ্ব। 

গত বৃহস্পতিবার, আমন্ত্রণ পেয়ে জাপানের টোকিও শহরে গিয়েছিলেন ফিলিপিন্স-এর রাষ্ট্রপতি রড্রিগো দুতেরতে। সেখানেই একটি জনসভায় টোকিও-র ফিলিপিনো সম্প্রদায়ের মানুষের উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছিলেন তিনি। এরপর হঠাৎই মঞ্চে তিনি ডেকে নেন পাঁচ ফিলিপিনো মহিলাকে। এরপরই তিনি ওই পাঁচ সুন্দরী মহিলার অনুমতি নিয়ে তাঁদের চুম্বন করেন। সেই মুহূর্তে মঞ্চে তাঁর সঙ্গে উপতস্থিত ছিলেন তাঁর দীর্ঘদিনের সঙ্গীও। তারপর মঞ্চে সকলের সামনে যে কথা বললেন তাতেই সকলেই তাজ্জব বনে গিয়েছেন। স্বয়ং রাষ্ট্রপতির জমুখ থেকে এমন কথা শুনবেন- তা হয়তো আশা করেননি কেউই। 

হোয়াইট হাউসের বাইরে আচমকাই অগ্নিদগ্ধ এক ব্যক্তি, ভাইরাল চাঞ্চল্যকর ভিডিও

গল্পে নয়, বাস্তবে গরু উঠল বাইকে, ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়

তাঁর কথা মতো তিনি মঞ্চে আগত পাঁচ মহিলাকে চুম্বন করে তিনি সকলের উদ্দেশে জানান, সুন্দরী মহিলারাই তাঁকে 'সমকামী' হওয়ার হাত থেকে 'সুস্থ' করে তুলেতা সাহায্য করাছেন! আর সেইকারণেই তিনি চেয়েছিলেন যে, মহিলাদের চুম্বন করে শেষ করতে চেয়েছিলেন। প্রথমে একজন মহিলা রাষ্ট্রপতির এমন আচরণে খানিকটা অপ্রস্তুত বোধ করেন এবং চুম্বনের পর তরিঘরি মঞ্চ ত্যাগ করেন। কিন্তু অন্যদিকে, স্বয়ং রাষ্ট্রপতির কাছ থেকে এমন আচরণ পেয়ে রীতিমতো আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন আর এক মহিলা। আর এক মহিলা আবার চুম্বনের পর রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ছবিও তোলেন।  

তবে রাষ্ট্রপতি জনসম্মুখে এমন কীর্তি এর আগেও করেছেন। গত বছর জুন মাসে সিওল-এ গিয়েও তিনি এক বিবাহিত ফিলিপিনো মহিলাকে চুম্বন করে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন তিনি।