শনিবার, বিশাল জনমত নিয়ে সাধারণ নির্বাচনে বিরাট জয় পেয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিকা আরড্রেন। ফলে দ্বিতীয়বারের মতো দেশের প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করতে চলেছেন তিনি। রবিরাই, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই জয়ের জন্য নিউজিল্যান্ডের জেসিন্ডা আরড্রেনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী মোদী বলেন, তিনি দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করার অপেক্ষায় রয়েছেন।

এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইট করে বলেন, "নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরড্রেন-কে দুর্দান্ত সাফল্যের জন্য আমার আন্তরিক অভিনন্দন। একবছর আগে আমাদের শেষ বৈঠকের কথা মনে পড়ছে এবং ভারত-নিউজিল্যান্ড সম্পর্ককে উচ্চতর স্তরে নিয়ে যাওয়ার জন্য একসঙ্গে কাজ করার প্রত্যাশা করছি।'

শনিবার ৮৭ শতংশ ভোট গণনার পর জানা যায়, আরড্রেনের মধ্য-বামপন্থী লেবার পার্টি ৪৮.৯ শতাংশ ভোট পেয়েছে। ১৯৯৬ সালে কিউই-র দেশে নতুন নির্বাচন ব্যবস্থার প্রবর্তনের পর থেকে এটাই সেই দেশে কোনও রাজনৈতিক দলের সর্বোচ্চ সাফল্য বলে জানা গিয়েছে। এই দারুণ জয়ের পর প্রধানমন্ত্রী আরড্রেন তাঁর বিজয়-ভাষণে বলেন, 'আজ রাতে নিউজিল্যান্ড গত ৫০ বছরে লেবার পার্টিকে তার বৃহত্তম সমর্থন দিয়েছে।'

এমনিতেই জেসিকা আরড্রেন দারুণ জনপ্রিয় নিউজিল্যান্ডে। সদ্যোজাত সন্তানকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রিদ্বের দায়িত্ব সামলানো, ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে হামলার পর তাঁর ভূমিকা থেকে শুরু করে সম্প্রতি কোভিড মহামারির মোকাবিলা - সমস্ত ক্ষেত্রেই বিপুল জনসমর্থন কুড়িয়েছেন তিনি।