সামান্য কয়েক টুকরো কাপড়ে কোনও ভাবে ঢাকা লজ্জা। নাতালিয়া গারিবোত্তো নামে এক ব্রাজিলিয় বিকিনি মডেলের এরকমই একটা ছবিতে নাকি 'লাইক' দিয়েছেন খ্রীষ্ট ধর্মের সর্বময় নেতা পোপ ফ্রান্সিস। অন্তত, সোশ্যাল মিডিয়া ইনস্টাগ্রাম-এর তথ্য তাই বলছে। ক্যাথলিক নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে গত ১৩ নভেম্বর থেকে দেখা যাচ্ছে নাতালিয়ার ওইরকম নগ্নপ্রায় ছবিতে 'লাইক' দেওয়া হয়েছে পোপের অ্যাকাউন্ট থেকে। স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় ইনস্টাগ্রামের উপর বেজায় চটেছে ভ্য়াটিকান। কীভাবে এটা হল, তার ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে।

গত ৫ অক্টোবর গারিবোত্তো ওই ছবিটি ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছিলেন। ছবিতে তাঁকে একটি স্কুলের লকারের স্কুলের পোশাকে তাঁকে অত্যন্ত কামোদ্দিপক ভঙ্গিতে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা গিয়েছে। কাটো পোশাকের আনাচ-কানাচ দিয়ে বেরিয়ে রয়েছে নিতম্ব-সহ ত্বকের অনেকটা অংশ। সঙ্গে ক্যাপশনে গারিবোত্তো লিখেছিলেন, 'দু-একটা জিনিস আমি আপনাদের শেখাতে পারি। সেইসঙ্গে স্যাটান বা শয়তানের শিংওয়ালা ইমোটিকন ব্যবহার করেছিলেন নাতালিয়া গারিবোত্তো।

ভাইরাল হওয়া স্ক্রিনশটে দেখা যাচ্ছে পোপের 'লাইক'

এই প্রতিবেদন লেখার সময় পর্যন্ত ছবিটির ১ লক্ষ ৭৭ হাজারেরও বেশি মানুষ লাইক করেছেন। আর তাদের মধ্য়েই জ্বল-জ্বল করছে পোপ ফ্রান্সিসের অ্যাকাউন্ট-ও। আর তা নেটিজেনদের চোখ এড়ায়নি। পোপের অ্যাকাউন্ট থেকে গারিবোত্তোর এই ছবিটিতে লাইক দেওয়ার স্ক্রিনশট ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। আর এটাকে নিজের প্রচারের কাজে দারুণভাবে ব্যবহার করেছেন ইনস্টাগ্রামে একের পর এক নগ্নপ্রায় ছবি দেওয়া এই ব্রাজিলিয় বিকিনি মডেলও। গারিবোত্তোর ম্যানেজিং সংস্থা 'কয় কো' ১৩ নভেম্বরই তাদের নিজেদের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে ছবিটি ফের পোস্ট করে লেখে, 'আমাদের আইকনিক রানী নাতালিয়ার জন্য কয় কো পোপ-এর আনুষ্ঠানিক আশীর্বাদ পেয়েছে'। নাতালিয়া গারিবোত্তো নিজেও রসিকতা করে বলেন, 'অন্তত আমি স্বর্গে যাচ্ছি।'

আরও পড়ুন - কোভিড মুক্ত হলেও যাচ্ছে না মৃত্যুভয়, প্রতিরোধের পথ বাতলালো ভারতীয়-মার্কিনিদের গবেষণা

আরও পড়ুন - 'মুসলিমদের জন্য কিছুই করিনি', ৬ সাক্ষাতে কীভাবে আলিমুদ্দিনের জীবন বদলে দিয়েছিলেন মোদী

আরও পড়ুন - সামান্য কেরানি থেকে ফার্স্ট লেডির উপদেষ্টা, বাইডেন প্রশাসনে যুক্ত হলেন আরেক ভারতীয় মালা আদিগা

এদিকে ভ্য়াটিকান স্বাভাবিকভাবেই এই ঘটনায় যারপরনাই বিব্রত। খ্রীষ্টানদের পবিত্র শহরের এক প্রতিনিধি জানিয়েছেন পোপের অ্যাকাউন্টটি দেখাশোনার জন্য আলাদা কর্মী রয়েছে, কিন্তু তারা কেউ ওই 'লাইক' করেননি। কীভাবে এটা ঘটেছে তা জানার জন্য তদন্ত করা হচ্ছে। তবে তারা মনে করছে এটা ইনস্টাগ্রামের গাফিলতি বা তাদের কোনও কর্মীকর কাজ। তারা এই বিষয়ে ইনস্টা কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ব্যাখ্যা দাবি করেছে।