প্রয়াত জিম্বাবোয়ের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। এপ্রিল মাস থেকেই সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন মুগাবে। শুক্রবার সকালেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। 

বর্ষীয়ান এই দেশনেতার জন্ম হয় ১৯২৪ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি রোডেশিয়ায়। ১৯৬৩ সালে ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক শাসনের বিরোধীতা করে জানু-পিএফ পার্টি প্রতিষ্ঠা করেন তিনি।  এরপর  ১৯৬৪ সালে  রোডেশিয়া সরকারের সমালোচনা করার জন্য প্রায় দশ বছরেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে দিন কাটিয়েছেন মুগাবে।

সাল ১৯৮০। স্বাধীন জিম্বাবোয়ের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নির্বাচিত হন রবার্ট মুগাবে। পরের বছর অর্থাৎ ১৯৮১ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন তিনি। এরপর ১৯৮৭ সালে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের বিলুপ্তি ঘোষণা করে জিম্বাবোয়ের প্রেসিডেন্ট হিসাবে নির্বাচিত হন। প্রায় চার দশক ধরে জিম্বাবোয়ের ক্ষমতার শীর্ষে ছিলেন তিনি। 

তিহার জেলে প্রথম রাতেই অস্থির চিদম্বরম, পেলেন না কোনও বিশেষ সুবিধা

৭ বছর ধরে জাঙ্ক ফুডে অভ্যস্ত, সতেরো বছর বয়সেই দৃষ্টি হারাল কিশোর

প্রতিবেশি দেশ দক্ষিণ আফ্রিকায়ে জাতিগত বিদ্বেষের অবসানের জন্য বিশেষভাবে সমর্থন করেছিলেন তিনি। ২০১৭ সালে সামরিক অভ্যুত্থানের পর ফলে তিনি সিংহাসনচ্যুত হন। তাঁর বিরুদ্ধে একাধিকবার নির্যাতন, হত্যাকাণ্ড সংগঠিত করার অভিযোগ উঠেছে বহুবার, সেইসঙ্গে আর্থিক দুর্নীতিরও অভিযোগ ছিল তাঁর বিরুদ্ধে। শুধু তাই নয়, বেশ কয়েকটি মানবাধিকার সংগঠনের তরফে তাঁর বিরুদ্ধে নির্যাতন ও বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ আনে বলে খবর। ২০১১ সালের একটি তথ্যে জানা যায় যে প্রস্টেট ক্যান্সারে আক্রান্ত ছিলেন মুগাবে। 

ফটোসেশনে আলিশান সোফা নয়, মোদী বেছে নিলেন সাধারণ চেয়ার, প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা

ফের আক্রান্ত কাশ্মীরি যুবক, সালোয়ার কামিজ পরিয়ে চলল বেধড়ক মার

শুক্রবার সকালে জিম্বাবোয়ের প্রেসিডেন্ট নাঙ্গাগওয়া টুইট করে প্রাক্তন রাষ্ট্রনেতার মৃত্যুর খবর পোস্ট করেন। তাঁর আত্মার শান্তি কামনা করেন তিনি।