শ্রাবণের অঝোর ধারার দরকার নেই। বৈশাখের ছিটেফোঁটা বৃষ্টিতেই চলবে। এবার এই ফোঁটা-ফোঁটা বৃষ্টি থেকেই তৈরি হবে কিনা মহার্ঘ বিদ্য়ুৎ! আর তার জন্য় লাগবে ছোট্ট একটি যন্ত্র।

এতদিন ধরে আমরা বিকল্প হিসেবে সৌর বিদ্য়ুৎ হয়ে বায়ুশক্তি থেকে তৈরি বিদ্য়ুতের কথাই শুনে এসেছি।  এবার শোনা গেল বৃষ্টি থেকে তৈরি বিদ্য়ুতের কথা। এবার বিজ্ঞানীরা এক ফোঁটা বৃষ্টি থেকে ১০০টি এলইডি বাল্ড জ্বালানোর মতো বিদ্য়ুৎ তৈরির পথ দেখিয়েছেন।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান জার্নাল নেচার পত্রিকায় হংকং বিশ্ববিদ্য়ালয়ের জুয়ানকি ওয়াংয়ের এই গবেষণার কথা প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে বিজ্ঞানী নিজে বলছেন, "আমাদের গবেষণা দেখিয়েছে যে ১০০ মাইক্রোলিটার জলকে যদি ১৫ সেমি উচ্চতা থেকে নির্গত করা যায়,  তাহলে তা ১৪০ ভোল্টের বেশি বিদ্য়ুৎ তৈরি করতে পারবে। ওই বিদ্য়ুৎ ১০০টা ছোট এলইডি বাল্ড জ্বালাতে পারবে। আমরা দেখেছি, জলবিদ্য়ুৎ কীভাবে উৎপাদন হয়। সেক্ষেত্রে বড় বাঁধ থেকে জল নির্গত হয় আর সেই শক্তি থেকে তৈরি হয় বিদ্য়ুৎ। এ ক্ষেত্রেও বিদ্য়ুৎ উৎপাদনের পরিমাণ প্রায় একই থাকবে।"

এদিকে এই গবেষণার কথা প্রকাশিত হতেই রীতিমতো কৌতূহল তৈরি হয়েছে। কারণ, জলবিদ্য়ুৎ উৎপাদনের অনেক সীমাবদ্ধতা রয়েছে। সেখানে বহু মানুষকে উচ্ছেদ করে বাঁধ তৈরি করতে হয়। তাছাড়া তা পরিবেশের ক্ষতি করে। তাই আন্তর্জাতিক মহল বহুদিন ধরেই বড় বাঁধ তৈরিতে রাশ টেনেছে। অন্য়দিকে, সৌরশক্তি থেকে বিদ্য়ুৎ তৈরি হলেও, তা এখনও পর্যন্ত  মূলস্রোতে আসতে পারেনি। বাড়ির ছাদে বা ছোটখাট কোনও  জায়গায় কেউ কেউ সৌরবিদ্য়ুৎ নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চালিয়েছেন, ওই পর্যন্ত। আর বায়ুশক্তি থেকে বিদ্য়ুৎ তৈরির যে প্রথা রয়েছে, তা সামান্য় কিছু ক্ষেত্রেই দেখা যায়। তাই, এবার বৃষ্টির জল থেকে বিদ্য়ুৎ তৈরির ওই অপ্রচলিত উৎসটি আবিষ্কার করেছেন বিজ্ঞানীরা, তা একই সঙ্গে পরিবেশ বান্ধব  ও সাশ্রয়ী হবে আশা করা যাচ্ছে।