সমুদ্র সৈকতে টুপিস পরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন সাদা চামড়া ও নীল চোখের সুন্দরী বিদেশিনী। হলিউডের ছবিতে এমন দৃশ্য আমরা প্রায়শই দেখে থাকি। এমনকি আমাদের দেশের গোয়া সৈকতেও বিকিনি পরিহিতা বিদেশী  সুন্দরী আকছার দেখা যায়। আর সেই বিকিনি পরার জন্যই গ্রেফতার হলেন এক বিদেশিনী। এমন অবাক কাণ্ডই ঘটেছে আমাদের প্রতিবেশী রাষ্ট্র মলদ্বীপে।

বিকিনি পরার কারণে মফুসি দ্বীপ থেকে গ্রেফতার করা হয় ওই বিদেশিনীকে। বিদেশিনীকে গ্রেফতারের একটি ভিডিও ইতিমধ্যে ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যাতে দেখা যাচ্ছে তিনি পুলিশ আধিকারিক কীভাবে জোর করে তাঁকে আবৃত করার চেষ্টা করছে।

আরও পড়ুন: প্রথমবার ভোট দিলেন প্রিয়ঙ্কা পুত্র রেহান বঢরা, বাবা-মায়ের সঙ্গে দাঁড়ালেন লাইনে

ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে  ওই বিদেশিনী একটি কালো বিকিনি পরে সমুদ্র সৈকতে ঘুরে বেড়াচ্ছিলেন। আর তাঁকে ওই অবস্থায় দেখে তিন পুলিশ আধিকারিক জোর করে সমুদ্র সৈকত থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করছে। এরমধ্যেই এক পুলিশ আধিকারিক  ওই বিদেশিনীকে টাওয়েল দিয়ে ঢেকে দিচ্ছেন। আর ব্রিটিশ ইংরেজিতে তার প্রতিবাদ করছেন বিদেশিনী। 

 

এভাবে বিদেশী পর্যটককে হেনস্থার ঘটনায় সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের মধ্যে তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। পরে মলদ্বীপের পুলিশ সার্ভিস কমিশনার মহম্মদ হামিদ এই ঘটনার জন্য জনসমক্ষে ক্ষমাও চান।

আরও পড়ুন: এবারের গ্রীষ্মে রেকর্ড গড়ল অ্যান্টার্কটিকা, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা পৌঁছল ১৮,৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে

হামিদ বলেন, " আমি বিদেশিনী পর্যটক ও জনতার কাছে ক্ষমা চাইছি। আমি চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করছি পুলিশ পরিষেবাকে আরও পেশাদার করে তোলার জন্য, বিদেশিনীকে হেনস্থার তদন্ত করছি আমরা।"

প্রবাল প্রচীর দিয়ে তৈরি মলদ্বীপে দ্বীপের সংখ্যা প্রায় ১২০০। প্রতিবছর প্রচুর বিদেশি পর্যটক আসেন মলদ্বীপে প্রাকৃতির সৌন্দর্যের টানে। এই দ্বীপগুলির বেশ কয়েকটিতে রয়েছএ আন্তর্জাতিক মানের হোটেল ও রিসর্ট। সেখানে পোশাক পরার স্বাধীনতাও রয়েছে পর্যটকদের। ওই দ্বীপগুলির বাইরে পোশাকের ক্ষেত্রে বেশকিছু বিধিনিষেধ রয়েছে।