বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩০ লক্ষ ছাড়িয়েছে। এর মধ্যে কেবল আমেরিকাতেই আক্রান্তের সংখ্যা ১০ লক্ষের বেশি। অর্থাৎ বিশ্বে মোট করোনা সংক্রণের  একের তৃতীয়াংশই রয়েছে মার্কিন মুলুকে। যদিও কিছুটা হলেও মৃত্যু হার কমেছে দেশটিতে। তবে কিছুতেই হাজারের নিচে নামেনি সেটি। গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন মুলুকে করোনা সংক্রমণে মৃত্যু হয়েছে ১,৩৩০ বেশি মানুষের। ফলে দেশটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৬ হাজার ৮০৩। তবে এর মধ্যেই আশার খবর, দেশটিতে করোনাকে জয় করে সুস্থ হয়েছে ১ লক্ষ ৩৮ হাজারের বেশি মানুষ।

গোটা মার্কিন মুলুক জুড়ে এখন স্বজন হারানোর হাহাকার শোনা গেলেও বদল ঘটেনি মার্কিন প্রেসিডেন্টের চরিত্রের। চেনা মেজাজে ফের চিনকে খোঁচা দিতে দেখা গেছে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। হোয়াইট হাউসের সাংবাদিক বৈঠকে চিনের প্রতি চাপা রাগ ফের উগড়াতে দেখা যায় মার্কিন প্রেসিডেন্টকে। ট্রাম্প বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের জন্য চিনকে মাশুল গুণতে হবে ৷ আর চিনকে উচিত শিক্ষা দিতে একেবারে তৈরি মার্কিন প্রাশসন ৷'

করোনার ভ্যাকসিনের সঙ্গে এবার বাংলার যোগ, অক্সফোর্ডের গবেষক দলের সদস্য কলকাতার মেয়ে

এবার করোনা কেড়ে নিল রাজ্যের আরও এক চিকিৎসককে, লড়াই শেষ স্বনামধন্য অস্থিরোগ বিশেষজ্ঞের

এবার তবলিগিরা দান করছেন প্লাজমা, দিল্লিতে সেরে উঠলেন ভেন্টিলেশনে যাওয়া রোগীও

চিনকে তুলোধোনা করে সদ্য একটি প্রবন্ধ প্রকাশ করেছে জার্মানির প্রথমসারির পত্রিকা ‘বিল্ড’। পর্যটন, উৎপাদন শিল্প-সহ বিভিন্ন খাতে করোনার জেরে হওয়া লোকসানের খতিয়ান তুলে ধরে চিনের বিরুদ্ধে ১৩০ বিলিয়ন পাউন্ডের ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়েছে সেখানে। কড়া ভাষায় বেজিংয়ের সমালোচনা করে ওই প্রবন্ধে বলা হয়েছে, গোটা বিশ্বের কাছে ইচ্ছাকৃতভাবে করোনা সংক্রান্ত তথ্য গোপন করেছে শি জিনপিং প্রশাসন। সঠিক সময়ে বেজিং সমস্ত তথ্য প্রকাশ করলে এই মহামারিকে ঠেকানো যেত। 

 জার্মান প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে করোনার কারণে যে ভাবে গোটা দুনিয়া নাজেহাল হয়েছে, গোটা দুনিয়া যে ভাবে থমকে গিয়েছে, তাঁর ক্ষতিপূরণ দিতে হবে ৷ এই নিয়ে চিনের কাছে মোটা টাকার বিলও পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে জার্মান প্রশাসন৷ সেই সূত্র ধরেই  সাংবাদিক বৈঠকে ট্রাম্প বলেন, ‘জার্মানির যতটা পরিমাণ ক্ষতিপূরণ চেয়েছে, তাঁর থেকেও অনেক বেশি ক্ষতিপূরণ চাওয়ার কথা ভাবছে মার্কিন প্রশাসন।' 

ট্রাম্পের কথায়, ‘করোনা ভাইরাসের মাশুল চিনকে গুণতেই হবে ৷ কারণ, করোনা শুধুমাত্র মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকে নয়, বরং গোটা দুনিয়াকে বিপযর্য়ের মুখে ঠেলে দিয়েছে ৷ চিনের এ ঘটনা ক্ষমার যোগ্য নয় !’ পাশাপাশি,  তিনি চিনের ওপর বিশেষ তদন্ত চালানোরও ডাক দিয়েছেন।