নজিরবিহীন কাজ করলেন থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রয়ূথ চান ওটা। মঙ্গলবারের ঘটনা। আর শুক্রবারের মধ্যেই তা নেটদুনিয়ায়া ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়ে গোটা বিশ্বে। বর্তমানে নেটিজেনদের প্রবল নিন্দার মুখে পড়তে হয়েছে থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীকে। কী করেছিলেন তিনি- এটাই ভাবছেন তো। দেখে নিন তিনি কী ভাবে বিষাক্ত স্যানিটাইজার স্প্রে করেছিলেন সাংবাদিকদের মুখের ওপর। তাঁর এই নির্মম কাজে রীতিমত সরব হয়েছে নেট দুনিয়া। 

ভাইরাল ভিডিওটি দেখুন 


কেন করেছিলেন? 
থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রয়ুথ চান ওচা মঙ্গলবার একটি সাংবাদিক সম্মেলন করছিলেন। কিন্তু তাঁর সেই সম্মেনল বারবার বাধা পেয়েছিল সাংবাদিকদের প্রশ্নের কারণে। তাতেই তিনি রীতিমত বিরক্ত হয়ে ছিলেন। সাংবাদিক সম্মেনল শেষ করেই সম্মেলনে উপস্থিত সাংবদিকদের মুখের পর স্যানিটাইজার স্প্রে করে দেন।  


সাংবাদিকদের প্রশ্ন- 
বর্তমানে তাঁর মন্ত্রিসভার দুই সদ্য জেলে রয়েছে। সাত বছর আগে বিদ্রোহে অংশ নেওয়ার কারণে দুই মন্ত্রীকে জেলে পোরা হয়েছিল। বর্তমানে তাঁর মন্ত্রীসভার সদস্যপদ নিয়ে তাঁকে প্রশ্ন করা হয়। তাতেই রীতিমত হতাশ হয়ে পড়েন তিনি। তারপরই সাংবাদিকদের মুখের ওপর স্প্রে করে দেন। আর সাংবাদিকদের জিজ্ঞাসা করেন তাঁদের আর কিছু জিজ্ঞাসা করার আছে কিনা। 

নেটিজেনদের বক্তব্য 
অধিকাংশ নেটিজেনই থাই প্রধানমন্ত্রীর এই কাজকে সমর্থন করেননি। অনেকেই তাঁর কাজকে বেগন বা হিট স্প্রে করে মশা মারার সঙ্গে তুলনা করেছেন। অনেকেই মন্তব্য করেছেন তাঁরা এই ছবি দেখে রীতিমত হতবাক হয়ে গেছেন। ট্রাম্পের সঙ্গে তুলনা করে বলেছেন  প্রয়ুথকেও সরিয়ে দেবে জনতা।