করোনাভাইরাসের উৎস কোথায়? প্রকৃতি না চিনের কুখ্যাত গবেষণাগার?  তা জানতেই ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্বাচিত বিজ্ঞানীরা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান ট্রেড্রাস আধনান ঘেব্রেয়েসুস ভার্চুয়াল সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন  করোনাভাইরাসের উৎস সন্ধানে তৎপর গবেষকরা। প্রথমিক ক্ষেত্রগুলি পর্যবেক্ষণ করে সংক্রমণের সম্ভাব্য উৎসস্থলে পৌঁছাতে চাইছে। প্রতিনিধি দলে মহামারী বিশেষজ্ঞ ও  প্রাণি স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ রয়েছেন। পর্যালোচনা ও সমীক্ষা চলার সময় চিনের সরকার তাঁদের গতিবিধি পর্যেবক্ষণ করবে। পাশাপাশি তাঁদের প্রয়োজনীয় সাহায্য করবে বলেও জানিয়েছে। 

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আরও জানিয়েছে আন্তর্জাতিক প্রতিনিধিরা চিনের বিজ্ঞানীদের সহযোগিতায় উৎসসন্ধানের কাজ শুরু করেবেন। পশু থেকে এটি কী করে মানুষের দেহে ছড়িয়ে পড়েছিল তাও জানান চেষ্টা করা হবে। তবে প্রথমদিকের সংক্রমণের সম্ভাব্য উৎস সন্ধানের জন্য উহান শহরে মহামারী সংক্রান্ত গবেষণা শুরু হবে। তবে তাঁরা উহানের গবেষণাগারে যাবে কিনা সে প্রশ্নের উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি। 

রাম মন্দিরের ভূমি পুজোর আমন্ত্রণপত্রে নিরাপত্তা কোড, মোদীর সঙ্গে মাত্র ৪ জনই থাকবেন মঞ্চে ..

চিন থেকেই করোনাভাইরাস গোটা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়েছিল বলে অভিযোগ তুলেছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনল্ড ট্রাম্প। প্রথমদিকে তিনি করোনাভাইরাসকে চিনা ভাইরাস বলেও কটাক্ষ করেছিলেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ও চিনের অদূরদর্শিতার কারণে বিশ্বে বিপর্যয় ডেকে এনেছে বলেও অভিযোগ করেছিলেন। বিশ্বে বাকি দেশ গুলিও উহানের কুখ্যাত ল্যাব থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ করেছিল। তারপরই কিছুটা বাধ্য হলেও চিনে আন্তর্জাতিক গবেষণাকদের প্রতিনিধি দলটিকে ঢোকার ছাড়পত্র দিয়েছিল বেজিং। 

ইদের ছুটিতে বাড়ি যাওয়ার পথে উধাও সেনা জওয়ান, জঙ্গিদের হাত রয়েছে বলেই মনে করেছে প্রশাসন ...

গজরাজ কি মন কাড়ল চিতাবাঘের, ২৬ সেকেন্ডের ভাইরাল ভিডিও নিয়ে কী বলেছে নেটদুনিয়া ..

তবে এদিন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রধান জানিয়েছেন করোনাভাইরাসকে কাবু করতে কোনও সিলভার বুলেট হয়তো পাওয়া যাবে না। এই ভাইরাসটিক বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন লড়াই করতে হবে বলেও ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।