সাধারণ ধারণা অনুযায়ী জয়ী দলের জনপ্রিয়তাই সবচেয়ে বেশি হয়। তারাই সবার আলোচনায় থাকে। কিন্তু সোশ্যাল মিডিয়া এক আজব দুনিয়া। আইপিএল ২০১৯-এর লিগ টেবিলে সবার নিচে গড়াগড়ি খেয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। অথচ সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে কিন্তু বিরাট কোহলির দলকে নিয়েই। সোশ্যাল মিডিয়া বিশ্লেষক সংস্থা গেরমিনএইট এই তথ্যই জানিয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় কখন কোন বিষয়টা মানুষের কাছে গুরুত্ব পাচ্ছে, কী নিয়ে চর্চা হচ্ছে বেশি - এই সব তথ্য বিশ্লেষণের কাজ করে থাকে গেরমিনএইট। আইপিএল চলাকালীন দেড় মাস ধরে ভারতীয়দের একটা বড় অংশের সোশ্য়াল মিডিয়ার আলোচনা দখল করে থাকে আইপিএল। সেই উৎসাহ উন্মাদনার অদ্ভুত কিছু ছবি উঠে ধরা পড়েছে গেরমিনএইট-এর কাছে। একনজরে দেখে নেওয়া যাক সোশ্যাল নিডিয়ার আইপিএল চিত্রটা -

সোশ্যাল মিডিয়ার আলোচনায় সবচেয়ে বেশি উল্লেখ হয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের নাম। আর সবচেয়ে কম আলোচনায় এসেছে কিংস ইলেভেন পঞ্জাব।

আরসিবি (২০ শতাংশ)-এর পরেই আলোচনায় ছিল কেকেআর (১৮ শতাংশ) ও চেন্নাই সুপার কিংস (১৭ শতাংশ)। আইপিএল নিয়ে মোট আলোচনার ৫০ শতাংশের বেশিই হয়েছে এই তিন দলকে নিয়ে।

সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম গুলির মধ্যে টুইটার (৩০ শতাংশ)-এই আইপিএল নিয়ে আলোচনা সবচেয়ে বেশি হয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় সবচেয়ে বেশি ছিল কলকাতা নাইটরাইডার্স (২২ শতাংশ)। তারপরেই ছিল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (১৭ শতাংশ) এবং চেন্নাই সুপার কিংস (১৬ শতাংশ)।

আইপিএল-এর প্রতি দলের অধিনায়ককে নিয়েই বেশি কথা হয়েছে। এমনকী কেকেআর দলেও রাসেলের থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় বেশি আলোচনায় এসেছেন কার্তিক। একমাত্র ব্যতিক্রম দিল্লি ক্যাপিটাল্স। এই গদলের সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটারটির নাম ঋষভ পন্থ।

সোশ্যাল মিডিয়ায় আইপিএল নিয়ে আলোচনায় মহিলা ছিলেন ৩০ শতাংশ, আর পুরুষ ৭০ শতাংশ।

যে বিষয়গুলি নিয়ে এক সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে -

    ১. ৩৪ রানে জিতে কেকেআর-এর শততম আইপিএল ম্যাচ জয়

    ২. স্বার্থের সংঘাত নিয়ে সচিন তেন্ডুলারের ব্যাখ্যা

    ৩. প্রথম ভারতীয় হিসেবে আইপিএল-এ ধোনির ২০০ ছয় মারা