দেশ জুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ লাগামহীন হয়ে যাওয়ায় মাঝপথেই বন্ধ করে দিতে হয়েছিল আইপিএল ২০২১। মারণ ভাইরাস থাবা বসিয়েছিল কেকেআর, সিএসকে, দিল্লি ক্যাপিটালস ও সানরাইজার্স হায়দরবাদের একাধিক প্লেয়ার , কোচ ও সাপোর্টিং স্টাফদের ওপর। মাঝপথে আইপিএল বন্ধ হওয়ার পর থেকেই আইপিএলের বাকি পর্ব আয়োজন করতে তৎপর ছিল বিসিসিআই। অবশেষে আলোচনার পর আরব আমিরশাহিকেই বেছে নেওয়া হয় আইপিএলের ফাইনাল সহ বাকি ৩১টি ম্য়াচের জন্য।

সরকারি ঘোষণা না হলেও, এখনও পর্যন্ত যা খবর সম্ভবত ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হবে আইপিএলের বাকি পর্বের খেলা। ফাইনাল হতে পারে ১০ অক্টোবর। মাঠে দর্শক প্রবেশের অনুমতি মিলবে কিনা তা নিয়েও এমিরেটস ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা চলছে বিসিসিআইয়ের। গত শনিবার বিসিসিআই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানিয়ে দেওয়ার পরেই শুরু হয়ে গিয়েছে তৎপরতা। এবার আইপিএলের যাবতীয় প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে বুধবার সকালেই আরব আমিরশাহির উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। 

২০২০ মরুশহরের মাটিতে সফলভাবে এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট আয়োজন করায় পরিকল্পনা রুপায়ণে খুব বেশি মাথা ঘামাতে হবে না বোর্ডকে। তবুও স্থগিত হয়ে যাওয়া টুর্নামেন্ট যেন আর কোনওভাবে বিঘ্নিত না হত সেটা নিশ্চিত করতে উদ্যোগী সৌরভের বোর্ড। শুধু সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় নয়, আইপিএলের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখতে ও বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন বিসিসিআই সচিব জয় শাহ, বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমল, যুগ্মসচিব জয়েশ জর্জ, বোর্ডের অন্তর্বর্তী চিফ এগজিকিউটিভ অফিসার (সিইও) হেমাঙ্গ আমিন সহ অন্যান্যরা। কোনও রকম ঢিলেমি রাখতে নারাজ বিসিসিআই।