২০২০-তে ফাইনাল হারের মধুর প্রতিশোধ ২০২১-এ নিল দিল্লি ক্যাপিটালস। আইপিএলে গ্রুপ পর্যায়ের খেলায় ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে ৬ উইকেটে হারাল গতবারের রানার্সআপ দিল্লি ক্যাপিটালস। শ্রেয়স আইয়র না থাকলেও, দিল্লি ক্ষতে কিছুটা মলম লাগালেন তরুণ অধিনায়ক ঋষভ পন্থ। ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ১৩৭ রান করে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। জবাবে ব্যাট করতে নেমে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে ৫ বল বাকি থাকতে জয়ের লক্ষ্যে পৌছে যায় দিল্লি ক্যাপিটালস।

 

 

ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন মুম্বই অধিনায়ক রোহিত শর্মা। শুরু থেকেই নিয়মিত ব্যবধানে উইকেট হারিয়ে চাপ বাড়তে থাকে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের ব্যাটিং লাইনআপের উপর। এদিনও মুম্বইয়ের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৪ব রান করেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। এছাড়া ইশান কিষাণ ২৬, সূর্কুমার যাদব ২৪, জয়ন্ত যাদব ২৩ রান করেন। কিন্তু বড় রানের ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হয় মুম্বইয়ের ব্যাটসম্যানরা। দিল্লির হয়ে ৪ ওভারে ২৪ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে অনবদ্য বোলিং করেন অমিত মিশ্র। এছাড়া দুটি উইকেট পান আবেশ খান ও একটি করে উইকেট পান স্টয়নিস, রাবাডা, ললিত যাদব।

 

 

রান তাড়া করতে নেমে শুরুতে পৃথ্বি শ-এর উইকেট হারায় দিল্লি ক্যাপিটালস। কিন্তু দ্বিতীয় উইকেটে ৫৩ রানের পার্টনারশিপ করে শিখর ধওয়ান ও স্টিভ স্মিথ। স্টিভ স্মিথ ৩৩ রানের ইনিংস খেলে আউট হয়। এদিনও দিল্লির হয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রানের ইনিংস খেলেন শিখর ধওয়ান। ঋষভ পন্থ এদিন ব্যাট হাতে রান পাননি। পরপর ৩টি উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপ বাড়ে দিল্লির উপর। শেষে ললিত যাদব নট আউট ২৩ ও শেমরন হেটমায়ার নট আউট ১৪ রানের ইনিংস খেলে দলকে জয় এনে দেয়। এই ম্য়াচ জয়ের ফলে লিগ টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এল ঋষভ পন্থের দল।