হিটম্যান শো-
কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে বিধ্বংসী মেজাজে ফর্মে ফিরলেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্স অধিনায়ক রোহিত শর্মা। আইপিএল ২০২০তে অভিযান শুরুর ম্যাচে চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে বড় রান পাননি হিটম্যান। সিএসকের বিরুদ্ধে মাত্র ১২ রানে আউট হয়েছিলেন। এদিন নাইট বোলারদের নিয়ে ছিনিমিনি খেলে ৩৯ বলে হাফ সেঞ্চুরি হাঁকালেন।

নতুন রেকর্ড মুম্বই অধিনায়কের-
আইপিএলে ১৯০টি ম্যাচ খেলে দুশো ছক্কা হাঁকানোর ক্লাবে ঢুকে পড়লেন রোহিত শর্মা। আইপিএলে সবচেয়ে বেশি ছক্কা হাঁকানোর তালিকায় ২০০টি ছক্কা হাঁকিয়ে চতুর্থ স্থানে রয়েছেন মুম্বইয়ের হিটম্যান। প্রথম স্থানে ঊনিভার্সাল বস ক্রিস গেইল।

চূড়ান্ত ব্যর্থ কামিন্স-
নাইটদের ১৫.৫ কোটির পেসার প্যাট কামিন্স আজ সুপার ফ্লপ। আইপিএল ২০২০-র প্রথম ওভারেই তাকে দুটি ছক্কা হাঁকান রোহিত। মুম্বইয়ের ব্যাটিং ইনিংসে পঞ্চম ওভারেও কামিন্সের দ্বিতীয় ও ষষ্ঠ বলে পুল শটে দুটি ছক্কা হাঁকান মুম্বই অধিনায়ক। শেষপর্যন্ত মাত্র তিন ওভারে ৪৯ রান দেন অজি বোলার। 

সূর্য-রোহিত জুটি-
দ্বিতীয় ওভারেই ডি ককের উইকেট তুলে নিয়ে চালকের আসনে বসবেন ভেবেছিলেন দীনেশ কার্তিক। কিন্তু তার সেই আশায় জল ঢেলে দেন সূর্যকুমার যাদব ও রোহিত শর্মার ৯০ রানের পার্টনারশিপ। মাত্র ৫৭ বলে এই রান তোলে তারা। 

ফ্লপ কেকেআর ওপেনার-
১৯৫ রানের টার্গেট চেস করতে গেলে একজন ওপেনারকে বড় ইনিংস খেলতে নয়। কিন্তু ব্যর্থ হন কেকেআরের দুজন ওপেনারই। ১১ বলে ৭ রান করেন শুভমান গিল এবং ১০ বলে ৯ রান করে আউট হন সুনীল নারিন।

দুর্দান্ত বোলিং মুম্বই বোলারদের-
প্রথম ওভার থেকেই কেকেআর ব্যাটসম্যানদের চেপে ধরেন মুম্বাই বোলাররা। এমনকি তাদের পার্ট টাইম বোলাররাও কেকেআরের কোনও ব্যাটসম্যানদের ভয়ংকর হয়ে ওঠার সুযোগ দেননি।

ফর্মে ফিরেছেন বুমরা-
অধিনায়ক রোহিত শর্মার মতোই প্রথম ম্যাচে নিজের ফর্মের ধারে কাছে ছিলেন না বুমরা। কিন্তু আজ রোহিতের মতোই ছন্দে ফিরলেন। বল হাতে দুর্দান্ত বোলিং করে ২ উইকেট নিয়েছেন তিনি। শেষে কামিন্সের বেপরোয়া ব্যাটিংয়ের সামনে পড়ে সামান্য মার খেলেও ততক্ষনে ম্যাচের ভাগ্য নির্ধারিত হয়ে গিয়েছিল। 

প‍্যাটিনসন-কামিন্স জুটি-
গত ম্যাচের মতোই এই ম্যাচেও শুরুতে দুর্দান্ত ছন্দে বোলিং করেছেন দুই বিদেশি পেসার। বোল্ট একটি মেডেন ওভারও করেন। গত ম্যাচে ডেথে প্রভাব ফেলতে পারেননি তেমন। আজ সেই আপসোসও পুষিয়ে নেন তারা। প‍্যাটিনসন নিজের চার ওভারে দেন মাত্র ২৫ রান। দুজনেই নেন দুটি করে উইকেট। 

ছন্দহীন মরগ‍্যান-
খেলার মধ্যে থাকলেও আইপিএলের প্রথম ম্যাচে চূড়ান্ত ফ্লপ ব্রিটিশ ওয়ানডে অধিনায়ক। এদিন ২০ বলে খেলে মাত্র ১৬ রান করে প‍্যাটিনসনের হাতে আউট হয়ে ফেরেন তিনি। যদিও তার পাশে দাঁড়িয়েছেন দীনেশ কার্তিক। আবু ধাবির গরমের সাথে তার মানিয়ে নিতে সমস্যা হয়েছে বলে দাবি কার্তিকের। 

চূড়ান্ত ফ্লপ রাসেল-
ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং তিনটি বিভাগেই চূড়ান্ত ব্যর্থ তিনি। লকডাউনে ওজন অনেকটাই বাড়িয়ে ফেলেছেন ক্যারিবিয়ান তারকা, যার প্রভাব ফিল্ডিংয়ে দেখা গিয়েছে। বোলিংয়েও আহামরি কিছু করতে পারেননি। ব্যাটিং করতে যখন এলেন তখন পরিস্থিতি সঙ্গীন। কিন্তু এই অবস্থা থেকে অনেক ম্যাচ কেকেআরকে জিতিয়েছেন তিনি। সেইজন্য ভক্তদের মনে আশা ছিল। কিন্তু ভাগ্যের জোরে দুটি চার মারলেও ১১ বলে মাত্র ১১ রান করে বুমরার বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন তিনি।