প্রয়াত ডিন জোন্স। বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম এক পরিচিত মুখ জোন্স। বর্তমানে আইপিএল-এর জন্য মুম্বই-এর ছিলেন। সেখানে তিনি আইপিএল-এর ধারাভাষ্যকার এবং বিশেষজ্ঞ ক্রিকেটার হিসাবে কাজ করছিলেন। জানা গিয়েছে বৃহস্পতিবার দুপুর বারোটায় প্রবল হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যকালে ডিন জোন্সের বয়স হয়েছিল ৫৯ বছর। 

স্টার স্পোর্টস কর্তৃপক্ষের হয়ে আইপিএল-এ কাজ করতে মুম্বই-এ এসেছিলেন ডিন জোন্স। অতিমারির আতঙ্কেও কাজের টানে ছুটে এসেছিলেন মুম্বই। কিন্তু, ক্রিকেটের প্রতি যে ভালোবাসার জন্য তাঁর মুম্বই আগমন। সেখানেই আচমকা এক প্রবল হৃদরোগ তাঁর জীবনকে কেড়ে নিল। স্টার স্পোর্টস কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, জোন্সের পরিবারের সঙ্গে তারা যোগাযোগ রেখে চলেছেন। জোন্সের প্রয়াণ অত্যন্ত মর্মান্তিক বলেও শোক প্রকাশ করেছে স্টার স্পোর্টস। জোন্সের মরদেহ কীভাবে অস্ট্রেলিয়ায় ফেরত পাঠানো হবে তা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ান হাই কমিশনের সঙ্গেও আলোচনা চলছে তাদের।  

স্টার স্পোর্টস এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছ, জোন্স ক্রিকেটের দূত হিসাবেই তাদের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে কাজ করছিলেন। বিশেষ করে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ক্রিকেট উন্নয়নের অসাধারণ অবদান রেখেছেন জোন্স। এমনটাও প্রেস বিবৃতিতে উল্লেখ করেছে তারা। আরও জানানো হয়েছে যে, নতুন প্রতিভা খুঁজে বের করা এবং তার গ্রুমিং-এর জন্য প্রবলভাবে আবেগপ্রবন ছিলেন জোন্স। তাঁর ধারাভাষ্যেরও প্রবল প্রশংসা করা হয়েছে স্টার স্পোর্টসের বিবৃতিতে। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে, ক্রিকেটের ধারাভাষ্যকার হিসাবে জোন্স প্রচণ্ড জনপ্রিয় ছিলেন। তাঁর ধারাভাষ্য লক্ষ-লক্ষা ক্রিকেটপ্রেমীর হৃদয় ছুঁয়ে গিয়েছে বছরের পর বছর। 

ডিন জোন্সের পরিবারের প্রতি শোকজ্ঞাপন করেছে স্টার স্পোর্টস। ৫২টি টেস্ট খেলেছেন জোন্স অস্ট্রেলিয়ার হয়ে। রান করেছিলেন ৩৬৩১ রান। গড় ৪৬.৫৫। শতরান ১১টি। অর্ধশতরান ১৪টি। ১৯৮৪ সাল থেকে ১৯৯২ সাল পর্যন্ত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে চুটিয়ে খেলেছেন জোন্স। একদিনের ম্যাচ খেলেছেন ১৬৪টি। রান করেছেন ৬০৬৮। গড় ৪৪.৬১। শতরান ৭ এবং অর্ধশতরান ৪৬। 

ক্রিকেট দুনিয়ায় তিনি পরিচিত ছিলেন প্রফেসর ডিয়ানো নামে। অস্ট্রেলিয়ার ভিক্টোরিয়া অঞ্চলের এই প্রাণোচ্ছল মানুষটির ভারত নিয়ে আলাদা আবেগ কাজ করত। বহু প্রাক্তন এবং বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেটারের সঙ্গে তাঁর রয়েছে বন্ধুত্বের সম্পর্ক। মাঠের মধ্যে অজি প্লেয়ারদের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেটারদের প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বিতাতেও সেই বন্ধুত্ব কোনও দিন নষ্ট হয়নি। বিভিন্ন লাইভ কমেন্ট্রি-তে তিনি চলে আসতেন বিশুদ্ধ ভারতীয় পোশাকে সাজগোজ করে। ভারতীয় খাবার, সংস্কৃতি প্রবলভাবে টানত জোন্সকে। ক্রিকেটে তাঁর বেশিরভাগ কাজই ছিল ভারতের বুকে। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ২৪৫টি ম্যাচ খেলেছেন জোন্স। রান করেছেন ১৯১৮৮। গড় ৫১.৮৫। শতরান ৫৫ এবং অর্ধশতরান ৮৮টি।