আজ দুবাইতে আইপিএলের মেগা ম্য়াচে মুখোমুখি দিল্লি ক্যাপিটালস ও কিংস ইলেভেন পঞ্জাব। একদিকে লিগ টেবিলের প্রথম স্থানে থাকলেও, পঞ্জাবকে হারিয়ে শেষ চারের জায়গা কার্যত পাকা করতে চান অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়রে দল। ম্যাচ জয়ের বিষয়ে বিশ্বাসী দিল্লি কোচ রিকি পন্টিংও। অপরদিকে, শেষ দুই ম্যাচ জিতে আত্মবিশ্বাস ফিরে পেয়েছে অধিনায়ক কে এল রাহুলের দল। তাই দিল্লিকে হারিয়ে প্রথম পর্বের হারের বদলা ও ২ পয়েন্ট নিয়ে নিজেদের শেষ চারের ওঠার রাস্তা আরও প্রশস্ত করতে চাইছে পঞ্জাব দল। তার দলের ভাল পারফরমেন্সের বিষয়ে আশাবাদী পঞ্জাব কোচ অনিল কুম্বলে। এদিন টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়র। বড় টার্গেট সেট করে বিপক্ষকে চাপে রাখার জন্যই এই সিদ্ধান্ত দিল্লি অধিনায়কের। 

আরসিবি বিরুদ্ধে জয় কিছুটা অক্সিজেন জুগিয়েছিল পঞ্জাব দলকে। আর মুম্বইয়ের বিরুদ্ধে সুপার ওভারে জয় পঞ্জাবের গুডলাক ফ্যাক্টর ফ্যাক্টরও ফিরিয়ে এনেছে বলে বিশ্বাস দলের সদস্যদের। এখনও পর্যন্ত যা খবর তাতে কিংস ইলেভেন পঞ্জাব দলের প্রথম একাদশে ব্যাটিং লাইনআপে থাকতে চলেছেন, কেএল রাহুল, মায়াঙ্ক আগরওয়াল, ক্রিস গেইল, নিকোলাস পুরাণ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, দীপক হুডা। অপরদিকে বোলিং লাইনআপে থাকতে চলেছেন ক্রিস জর্ডান, মুরগান অশ্বিন বা কৃষ্ণাপ্পা গৌতমের মধ্যে একজন, মহম্মদ শামি, রবি বিষ্ণোই, আর্শদীপ সিং। পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে শুধু ঝাঁপানোই নয়, এই ম্যাচ থেকে পুরোপুরি ২ পয়েন্ট তুলে নিতে মরিয়া কেএল রাহুলের দল।

অরদিকে ছাড়বার পাত্র নয় দিল্লি ক্যাপিটালসও। দলের ব্যাটিং থেকে বোলিং সব বিভাগেই  দুরন্ত ফর্মে রয়েছে দিল্লির প্লেয়াররা। শেষ ম্যাচে সেঞ্চুরি করে দুরন্ত ছন্দে রয়েছে শিখর ধাওয়ান। এছাড়া পৃথ্বী শ, শ্রেয়স আইয়র, মার্কাস স্টয়নিস সকলেই দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন। সুস্থ হয়ে দলে ফিরছেন ঋষভ পন্থ। অপরদিকে অ্যালেক্স ক্যারের জায়গাতেও দলে ফিরছেন ছন্দে থাকা শেমরন হেটমায়ার। আনরিখ নর্ৎজের বদলে সুযোগ পেয়েছেন ড্যানিয়েল সামসও। অপরদিকে বোলিং লাইনআপেও দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন কাগিসো রাবাজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, অ্যাক্স প্যাটেল, তুষার দেশপান্ডেরা। লিগ টেবিলের যা পরিস্থিতি তাতে আর একটি ম্যাচ জিতলেই শেষ চার কার্যত পাকা হয়ে যাবে কোচ রিকি পন্টিংয়ের দলের। তাই পঞ্জাবকে এক ইঞ্চিও জমি ছাড়তে নারাজ শ্রেয়স আইয়রের দল। আর দুবাইতে আরও একটি রুদ্ধশ্বাস ম্য়াচ দেখার অপেক্ষায় ক্রিকেট প্রেমিরা।